কলকাতানিউজ

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় মান্দাস, বাংলায় কতটা প্রভাব ফেলবে?

বঙ্গে আপাতত শীতের আমেজ। তবে আপাতত শীতের আমেজ থাকলেও শুক্রবার থেকে বদল হতে চলেছে আবহাওয়া। আসলে হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছে এই মুহূর্তে রয়েছে ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা। আর নিম্নচাপের জেরেই এই শুক্রবার থেকে তাপমাত্রা বাড়তে পারে। হ্যাঁ শীতের ফের দুর্যোগের সংকেত দিয়েছেন আবহাওয়া দপ্তর।

খবর ইতিমধ্যে দক্ষিণ আন্দামানের নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। সেই নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে বৃহস্পরিবারের মধ্যেই যা তামিলনাড়ু ও পুরুচেরির উপকূলে আছড়ে পড়বে। বৃহস্পতিবার সকালে ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার গতিবেগের এই ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়তে পারে উপকূলে। এই ঘূর্ণিঝড়ে নাম দেওয়া হয়েছে ‘মান্দাস’।

হাওয়া অফিস বলছে দক্ষিণ আন্দামান সাগরে ঘূর্নাবর্ত নিম্নচাপে পরিণত হওয়ার পর দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরের এই নিম্নচাপ তৈরি হবার প্রবল সম্ভবনা রয়েছে। মঙ্গলবারের মধ্যেই যে নিম্নচাপ গভীর নিম্ন চাপে পরিণত হবে এমনটাই আন্দাজ। আর বুধবারের মধ্যে সেই গভীর নিম্নচাপ অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে আরো শক্তি বাড়াবে।

দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে বুধবার রাতে পরিণত হওয়া ঘূর্ণিঝড়ের অভিমুখ হবে পশ্চিম ও উত্তর-পশ্চিম দিকে ফলে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর থেকে এটির অভিমুখ দক্ষিণ পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের দিকে হবে। আবহাওয়াবিদরা মনে করছেন বুধবার রাত থেকে তামিলনাড়ু, পুদুচেরি, করাইকাল এবং অন্ধপ্রদেশ উপকূলে এর প্রভাব পড়তে শুরু করবে।

ভারী বৃষ্টি ঝড়ো হাওয়া তো হবে তার সঙ্গে ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার গতিবেগে দমকা ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে। বৃহস্পতিবার সকালের দিকে এটি স্থলভাগের প্রবেশ করতে পারে। প্রবেশ করার সময় এর গতিবেগ প্রতি ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৯০ থেকে ১০০ কিলোমিটার হতে পারে পারে বলে অনুমান। তবে হ্যাঁ আমাদের রাজ্য থেকে অনেক দূর থাকায় সরাসরি এর প্রভাব পড়বে না বাংলায়।