দেশনিউজ

সন্তান থাকতে বাবা-মাকে বৃদ্ধাশ্রমে রাখা যাবেনা, মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পরেই মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু অসমে

অসম সরকার (Government of Assam) আনতে চলেছে এক নতুন আইন, এই আইন বলে ছেলে মেয়ে বর্তমান থাকলে বৃদ্ধাশ্রমের (old age home) রাখা চলবে না বাবা মাকে। অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা (Assam Chief Minister, Himanta Bishwa Sharma) আজ জানিয়েছেন, ‘রাজ্যে ক্রমাগত বেড়ে চলছে বৃদ্ধাশ্রমের সংখ্যা যা কোন শুভ ইঙ্গিত নয়। সন্তানরা বাবা মাদের সাথে যত থাকবে তারা ততো সংস্কার শিখবে। বাবা মাকে বৃদ্ধাশ্রমে পাঠানোর সংস্কৃতি দেশে চালু হলে সমাজ ভেঙে পড়বে।

অসম মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন, কেবল যাদের সন্তান নেই তারাই বৃদ্ধাশ্রমে থাকতে পারবে। কিন্তু বাইরে চাকরি করার জন্য বাবা মাকে বৃদ্ধাশ্রমে রেখে টাকা পাঠিয়ে সন্তান কতব্য সেরে ফেলবে এমনটা অসমে চলবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী। আর তাই এই বিষয়ে আনা হবে কড়া আইন। অসম সরকারের পক্ষ থেকে নতুন নিয়ম আনা হচ্ছে, এই নিয়মে যেই সমস্ত সরকারি কর্মচারীরা নিজেদের বাবা-মার দেখভাল করবেন না তাদের বেতনের অংশ সরাসরি তাদের বৃদ্ধ বাবা মার একাউন্টে পৌছে যাবে।

বৃদ্ধাশ্রম নিয়ে আসাম মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পর আসাম বাসীদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গিয়েছে। কেউ এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছে আবার কেউ করেনি। একাধিক মানুষ বলছেন, বর্তমানে যেভাবে বয়স্ক বাবা মাকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে এবং যেনতেন প্রকারে তাদের বৃদ্ধাশ্রমে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে তা সত্যি নিন্দনীয়। বাবা মায়ের সম্পত্তি দখল করে বাবা-মাকে রাস্তায় বের করে দিচ্ছে ছেলেমেয়েরা আর তার জন্য সরকারের নেওয়া এই কড়া পদক্ষেপের প্রশংসা করছেন অনেকেই।

অন্যদিকে এই সিদ্ধান্তকে সমর্থন করছেন না কিছু মানুষ, শহরের একটি পুরনো বৃদ্ধাশ্রমের মালকিনের বক্তব্য, কেবলমাত্র যাদের সন্তান থাকবেনা তারাই বৃদ্ধাশ্রমের থাকতে পারবেন এই আইন যথাযথ নয়। কারণ এরকম অনেক বৃদ্ধ-বৃদ্ধা রয়েছেন যারা স্বাধীনভাবে বাঁচার জন্য সন্তানের সংসার ছেড়ে স্বেচ্ছায় বৃদ্ধাশ্রমে থাকতে পছন্দ করেন। আবার অনেকেরই ছেলেমেয়ে কর্মসূত্রে বাইরে থাকে তাদের পক্ষে একা থেকে নিজেদের সেবা-যত্ন করা সম্ভব নয় তাই এই আইন প্রণয়ন করলে অনেকেই অসুবিধায় করবেন বলে মত কিছু অংশের।

Tags

Related Articles

Close