লাইফস্টাইল

সহজেই দূর হবে আর্থিক সংকট, প্রতি শুক্রবারে এইভাবে ব্যবহার করুন জবা ফুল

বর্তমানে অনেকেই বিশ্বাস করেন বাস্তুকে, বা অনেকেই এই বাস্তু মেনে চলেন। আমরা পূজা অর্চনার জন্য বিভিন্ন ধরনের ফুল ব্যবহার করলেও বাস্তু মতে এমন কিছু ফুল রয়েছে যেগুলি দিয়ে বিভিন্ন পূজার্চনা বিধি অত্যন্ত শুভ বলে গণ্য করা হয়। তেমনই বাস্তুতে শুভ বলে গণ্য করা হয় জবা ফুলকে। বাস্তুতে জবা ফুল দিয়ে একাধিক পূজার বিধি বলা হয়েছে যা অত্যন্ত ফলোদায়ক হতে পারে। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক, কিভাবে এই জবা ফুল দেবদেবী আরাধনায় ব্যবহার করে সুখ সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পাবে।

সূর্যদেবকে জল ও ফুল নিবেদন- সূর্যদেবকে নিয়মিত জল অর্পণ করলে এটি আমাদের পাপ মুক্তির সাহায্য করে। তাই নিয়মিত সূর্যদেবকে জলার্পণ করবার সময় তার সঙ্গে যদি একটি লাল জবা ফুলের সঙ্গে এক চিমটি কুমকুম সহযোগে অর্পণ করা যায়, তবে সেটি আমাদের যেকোনো শত্রুর মোকাবেলা করতে সাহায্য করে এবং জীবনে সাফল্য পেতেও সাহায্য করে।

মা দুর্গাকে ফুল নিবেদন- অর্থ কষ্টকে দূর করতে প্রতিদিন মা দুর্গাকে জবা ফুল নিবেদন করতে পারেন। যদি প্রতি শুক্রবার সিদ্ধিদাতা এবং মা দুর্গাকে পাঁচটি করে জবা ফুল দিতে পারেন। তবে আপনাকে অর্থকষ্ট কোনদিনই ছুঁতে পারবেনা। তবে মনে রাখবেন প্রতি শুক্রবার এই ফুল নতুন ফুল দিয়ে পরিবর্তন করতে হবে।

দেবী লক্ষ্মীকে ফুল নিবেদন- দেবী লক্ষী অর্থ, সুখ সমৃদ্ধির দেবী। তাই এই দেবীকে সন্তুষ্ট করতে পারলে আপনার জীবন ভরে উঠবে সুখ-সমৃদ্ধিতে। আর এর জন্য নিয়মিত মা লক্ষীকে দুটি করে জবা ফুল ও ক্ষীর নিবেদন করুন। এটি আপনার সংসারে সুখ সমৃদ্ধির আমূল পরিবর্তন আনবে।

বৈভব লক্ষ্মীকে ফুল নিবেদন- প্রতি শুক্রবার বৈভব লক্ষ্মীকে জবা ফুল দিয়ে পূজা করলে আপনার সকল মনের ইচ্ছে পূরণ হবে এবং আপনি দ্বিগুণ সমৃদ্ধশালী হয়ে উঠবেন। যেকোনো আটকে থাকা পুরনো টাকাও ফেরত পেতে পারেন। আবার নতুন নতুন কাজের যোগাযোগও পেতে পারেন, এছাড়াও অর্থসংকটও দূর হবে আপনার।