লাইফস্টাইল

ঘরের প্রবেশপথের ওপরে এইদিকে রাখুন স্বস্তিক চিহ্ন, পাবেন অর্থনৈতিক সংকট থেকে মুক্তি

বাড়ির প্রবেশদ্বার এর উপর লাল আলতা সিঁদুর দিয়ে লাল রঙের স্বস্তিক চিহ্ন আঁকতে পারেন

বর্তমানে জ্যোতিষশাস্ত্রের সাথে সাথে বাস্তু শাস্ত্রের প্রতিও মানুষ বিশ্বাসী হয়ে উঠছে। এখন বহুজনকে দেখা যায় বাস্তু মেনে চলতে। তবে অনেকে বাস্তুশাস্ত্রের উপর বিশ্বাস করলেও অনেকেই রয়েছেন যারা এগুলিতে খুব একটা বিশ্বাস করেন না। অনেকের কাছে এগুলি কুসংস্কার। কিন্তু বাস্তুবিদদের মতে,বাস্তু বহু প্রাচীনকাল থেকে চলে আসা এক শাস্ত্র। যা প্রাচীনকাল থেকেই মানুষ মেনে চলেন। তবে এখন অনেককেই দেখা যায় এই বাস্তু মেনে বাড়িঘর তৈরি করতে বা সাজাতে।

শোনা যায়,এই বাস্তুশাস্ত্র মেনে ঘরবাড়ি বানালে বা নির্দিষ্ট দিক অনুসারে জিনিসপত্র সাজিয়ে রাখলে অর্থনৈতিক সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে। এছাড়াও মানসিক এবং শারীরিক শান্তি এনে দেয় এই বাস্তুশাস্ত্র। আর হিন্দু শাস্ত্র মতে স্বস্তিক চিহ্ন একটি অত্যন্ত শুভ চিহ্ন। বাস্তুশাস্ত্রে স্বস্তিকচিহ্ন কে নিয়ে বলা রয়েছে নানান কথা। আর আজকের প্রতিবেদনে আপনাদের জানাবো বাস্তুশাস্ত্র মতে কিভাবে স্বস্তিক চিহ্ন ব্যবহার করলে বাড়বে প্রতিপত্তি।

বাস্তুমতে আপনি যদি অষ্টধাতুর স্বস্তিক চিহ্ন আপনার বাড়ির প্রবেশদ্বারের ওপরে রাখতে পারেন তবে এটি আপনার জীবনে বয়ে আনবে সুখ-সমৃদ্ধি। এছাড়াও এটি আপনার অর্থ সংকট দূর করতে সহায়তা করবে। অষ্টধাতু ছাড়াও যদি আপনার বাড়ির প্রবেশদ্বার এর উপর লাল আলতা সিঁদুর দিয়ে লাল রঙের স্বস্তিক চিহ্ন আঁকতে পারেন তবে সেটি স্বয়ং মা লক্ষীকে আপনার বাড়িতে আমন্ত্রণ জানাতে সাহায্য করে।

বাস্তুর মতে মা লক্ষীকে লাল রং আকর্ষিত করে। তাই আপনার বাড়ির প্রবেশদ্বারে লাল রঙের স্বস্তিক চিহ্ন থাকলে মা লক্ষীর প্রবেশ ঘটবে আপনার বাড়ি। যার ফলে আপনার জীবন থেকে ঘুঁচবে অর্থসংকট। এছাড়াও আপনি তামা দিয়ে তৈরি স্বস্তিক চিহ্নও আপনার বাড়িতে লাগাতে পারেন। এটি আপনার ব্যবসা ও জীবিকার সমৃদ্ধি ঘটাবে।

Related Articles