×

অল্প সময়ে কোটিপতি হতে চান? তবে শুরু করুন এই ব্যবসা, মাত্র ৩ বছরেই হাতেনাতে ফল পাবেন

বিগত কয়েক বছরে দেশের আপামর কৃষকদের দৃষ্টিভঙ্গিতে এসেছে বিরাট পরিবর্তন। সাধারণ চিরাচরিত ফসল ছেড়ে তারা ঝুঁকছেন মুনাফাকারী ফসলের দিকে আর সরকারও তাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করতে উদ্যোগী হচ্ছে। তাই আজ আমরা আমাদের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমাদের দেশের কৃষকদের জন্য নিয়ে এসেছি এমনই এক মুনাফাকারী ফসলের হদিশ যা খরচ এবং আয় এর সাপেক্ষে অনেক বেশি লাভকারক। ভাবছেন কি সেই ফসল? আজ্ঞে,সেটি হল কাজু!

আপনি যদি কোনো একটি মুনাফাকারী ফসলের চাষাবাদে ইচ্ছুক হন যা আপনাকে সারাবছর লাভের মুখ দেখাবে তাহলে বেশি চিন্তা না করে আজই শুরু করে দিন কাজুর চাষ। শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা যেকোনো ঋতুতেই ফলদায়ী এই গাছ 14 থেকে 15 মিটার লম্বা হয় এবং লাগানোর তিন বছর পর থেকেই একটি কাজু গাছ ফল প্রদান করতে আরম্ভ করে। একটি কাজু গাছ থেকে গড়ে কুড়ি কেজি কাজু উৎপাদিত হয়। তাই কৃষকেরা তাই এক হেক্টর জমিতে যদি 500টি কাজু গাছ লাগান,সেক্ষেত্রে প্রায় 10টন কাজ উৎপাদন করা সম্ভব।

তবে শুধু কাজুই নয়! কাজুর খোসা থেকে উৎপাদন করা যায় লুব্রিক্যান্ট,পেইন্ট প্রভৃতি। কাজু চাষ আপনাকে সারা বছরই লাভ এর মুনাফা দেখাতে সাহায্য করে। সাধারণত 20 থেকে 35 ডিগ্রি উষ্ণ তাপমাত্রাযুক্ত অঞ্চলে লাল বেলে দো-আঁশ মাটিতে কাজুর ফলন সবথেকে ভালো হয়। এছাড়াও বিশ্বের প্রায় 25% কাজু ভারতেই উৎপাদিত হয় যার মধ্যে মহারাষ্ট্র,গোয়া,কর্ণাটক,তামিলনাড়ু, অন্ধপ্রদেশ,ওড়িশা,পশ্চিমবঙ্গ হলো প্রধান অঞ্চল।

বর্তমানে বারোশো টাকা প্রতি কেজি বাজারদর রয়েছে কাজুর। তাই এই চাষাবাদ ব্যয় সাপেক্ষ হলেও কাজু চাষে আয় মেলে অত্যন্ত ভালো। তাই আর দেরি কিসের? নিকটবর্তী কৃষি সমবায়ের দোকান থেকে আজই কিনে আনুন কাজুর চাড়া এবং শুরু করে ফেলুন কাজু চাষ আর লাভের মুখ দেখুন।