×

‘গাঁজা খাওয়া লিকপিকে মহিষাসুর’, ‘মন্টু পাইলট’ সৌরভের অসুরের সাজ দেখে হাসির রোল নেটমহলে

হাতে মাত্র আর কয়েকদিন তারপরেই বাঙালি মেতে উঠবে দুর্গোৎসব নিয়ে। ইতিমধ্যে আকাশে পেজা তুলো কাশবন জানান দিচ্ছে পুজো চলে এসেছে তবে পুজোর এই প্রানবন্ত আমেজ মহালয়া যে আরো খানিকটা বাড়িয়ে দেয় তা বলার অপেক্ষা রাখে না। মহালয়ার সকালে ভোরের কাঁচা ঘুম ভাঙিয়ে রেডিও শোনার বা টিভি খুলে বসার যে অনুভূতি তা ভাষায় প্রকাশ করার নয়।

এই কারণেই প্রতিবছরই বাংলা চ্যানেলগুলোর তরফে ঢেলে সাজানো হয় মহালয়ার অনুষ্ঠান। প্রতিবছরই টেলিভিশনের সামনে বসে একাধিক মুখের সাথে পরিচিত হয় বাঙালি। এবারেও সেই রকমই মহালয়ার ভোরে স্টার জলসা সম্প্রচারিত করতে চলেছে “যা চন্ডী।” সেখানেই মহিষাসুর রূপে দেখতে পাওয়া যেতে চলেছে বর্তমানে টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সৌরভ দাসকে। আর তার সাম্প্রতিক মহিষাসুর লুক নিয়েই শুরু হয়েছে চর্চা।

ইতিপূর্বে জানা গেছে এতে দুর্গারূপে দেখা যেতে চলেছে মোহর ধারাবাহিক খ্যাত সোনামণি সাহাকে। এবার সম্প্রতি মহিষাসুর রূপে সৌরভের লুক রিভিল হয়েছে আর যা দেখা মাত্রই হাসির রোল উঠেছে নেটদুনিয়া জুড়ে। মন্টু পাইলট খ্যাত সৌরভের মহিষাসুর লুক নেট জনতার একাংশের পছন্দ হয়নি, যার জন্য শুরু হয়েছে ট্রোল।

'গাঁজা খাওয়া লিকপিকে মহিষাসুর', 'মন্টু পাইলট' সৌরভের অসুরের সাজ দেখে হাসির রোল নেটমহলে

অনেকেই কারণ হিসেবে জানিয়েছেন মহিষাসুর চরিত্রের সঙ্গে একেবারেই অভিনেতা মানানসই হয়নি। শারীরিক গঠন থেকে শুরু করে হাবভাব কোনোটি মহিষাসুরের সঙ্গে একাত্ম হতে পারেনি। অনেকেই তাকে “গাঁজাখোর মহিষাসুর” আখ্যা দিয়েছেন ইতিমধ্যেই। শুধু তাই নয়, বডি শেমিংও করা হয়েছে সৌরভকে। কেউ বললেন “তাল পাতার সেপাই” তো কেউ বললেন “হাওয়া দিলেই উড়ে যাবে”। তবে গোটা বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলেননি অভিনেতা। মহালয়ার ভোরে অভিনয় দিয়েই কি সমালোচকদের জবাব দেবেন তিনি! অপেক্ষায় তার অনুরাগীরা।

Related Articles