বিনোদন

আবারও মিরাকেল ফাইটার ঐন্দ্রিলার, খুশির খবর দিলেন প্রেমিক সব্যসাচী

টানা দু সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে চলছে যমে মানুষ টানাটানি। ঐন্দ্রিলার অদম্য ইচ্ছার কাছে বারবার হার মানছে অসম্ভব। মন থেকে পার্থনা করলে যে অসম্ভবকেও সম্ভব করা যায় সেই মিরাকেলের সাক্ষী হয়ে থাকলো সারা দুনিয়া। পরপর দুবার হার্ট অ্যাটাকের পর একটা সময় হৃদস্পন্দন থেমে যায় ঐন্দ্রিলার। চিকিৎসকেরাও দিয়ে দেন জবাব। কিন্তু হাল ছাড়েনি কেউই সকলের পার্থনা এবং লড়াকু মেয়েটির অদম্য বাঁচার ইচ্ছে তাকে আবার বাঁচার লড়াইয়ে ফিরিয়ে এনেছে। যুদ্ধক্ষেত্রে এখনো লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে ঐন্দ্রিলা।

পরপর দুবার হার্ট অ্যাটাকের পর ঐন্দ্রিলার হার্টবিট নেমে যায় ৪০ এর নিচে এবং কমতে থাকে রক্তচাপ। তারপরেই থেমে যাই হৃদস্পন্দন। চিকিৎসকরা জানান, “ঐন্দ্রিলা আর নেই। চলে গিয়েছে অনেকক্ষণ, ওকে পিসফুলি যেতে দাও, আটকে রেখোনা”। ইতিমধ্যে এই খবর ফেসবুকেও ছড়িয়ে গিয়েছিল । কিন্তু চিকিৎসকদের কথা মন থেকে মেনে নিতে পারেনি সব্যসাচী। তাই মনের মধ্যে শেষ আশা টুকু জমিয়ে রেখেছিল সে। তিনি অপেক্ষা করছিলেন মিরাকেলের।

আর তারপরেই ঘটে যায় মিরাকেল। সকলে যে মীরাকেলের প্রার্থনা করছিলেন সেই অসম্ভব সম্ভব হল। রাত আটটার সময় ঐন্দ্রিলার হাত নড়ল, হার্টবিট রেট বেড়ে হল ৯১, ব্লাড প্রেসার হল ১৩০/৮০। লড়াই প্রাঙ্গণে আবার ফিরে এলো লড়াকু ঐন্দ্রিলা। বেঁচে থাকার লড়াই যে কতটা কঠিন হতে পারে তা বারবার বুঝিয়ে দিচ্ছে ঐন্দ্রিলা। আর সেই লড়ায়ে কিভাবে অদম্য শক্তি দিয়ে লড়াই করতে হয় ঐন্দ্রিলা তার উদাহরণ।

সম্প্রতি সব্যসাচী তার ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছেন বর্তমানে ঐন্দ্রিলা আগের থেকে ভালো আছেন। আস্তে আস্তে ভেন্টিলেশন থেকে বেরোনোর চেষ্টা করছেন। একপ্রকার কোনো সাপোর্ট ছাড়া রয়েছেন তিনি। তার অবস্থা তুলনামূলক ভালোর দিকে। এছাড়াও জানিয়েছেন ঐন্দ্রিলার সমস্ত চিকিৎসার ভার নিয়েছেন স্বয়ং গায়ক অরিজিৎ সিং। এর কারণে অরিজিৎ সিংকে তিনি তাই পোস্টে ধন্যবাদ ও জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত বেশ কিছু দিন ধরে অরিজিৎ সিং এর কনসার্টের টিকিটের দামের কারণে বেশ চর্চার মধ্যে পড়তে হয়েছিল গায়ককে। কিন্তু তার এই মানবিকতার কাছে আবারো হার মারলো, হাজারো ট্রোলার। অরিজিৎ সিং এর এমন মানবিক পদক্ষেপে প্রশংসা ছড়িয়েছে সারা নেট পাড়ায়। সবশেষে সকলের একটিই প্রার্থনা সুস্থ হয়ে ফিরে আসুক ঐন্দ্রিলা।

Related Articles