অর্থনীতি

মাত্র ১০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করে পেয়ে যান ১ কোটি টাকা, কিভাবে করবেন জেনেনিন

Advertisement

অবসর গ্রহণের পর কিভাবে সংসার চালাবে সেই ভেবেই অনেকে খুব চিন্তায় থাকে। অবসর নেওয়ার পর বাকি জীবনটা সুখে শান্তিতে কাটানোর জন্য সবথেকে ভালো উপায় আগে থেকেই ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয় করা। এর জন্য সবথেকে ভালো উপায় হল সঠিক জায়গায় বিনিয়োগ। বিশেষজ্ঞদের ধারণা উচ্চ সুদের হার এবং কর বাঁচানোর জন্য পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্থাৎ পিপিএফে বিনিয়োগ অত্যন্ত লাভজনক।

পিপিএফ খাতে বিনিয়োগ করলে কি কি সুবিধা রয়েছে, একনজরে দেখে নিন:-

১) উচ্চ সুদের হার:- পিপিএফে সুদের হার ৭.১। অন্যান্য ব্যাঙ্কের ফিক্সড ডিপোজিটের সাথে তুলনা করলে দেখা যাবে পিপিএফে সুদের হার ১ শতাংশ হলেও বেশি। তাই গত ২ বছর ধরে পিপিএফ খাতে বিনিয়োগ যথেষ্ট লাভজনক মনে করছে বিশেষজ্ঞরা।

২) কর মুকুব:- পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড একেবারে ট্যাক্স ফ্রি। অন্যান্য জায়গায় বিনিয়োগের ক্ষেত্রে চড়া কর দিতে হয়। কিন্তু পিপিএফ খাতে বিনিয়োগে কোনো কর দিতে হয় না।

৩) কোটিপতি হবার সুযোগ:- প্রতি আর্থিক বছরে কোনো পিপিএফ অ্যাকাউন্টে সর্বোচ্চ ১.৫ লক্ষ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৫০০ টাকা বিনিয়োগ করা যায়। যদি সুদের হার ৭.১ হয় আর কোনো ব্যাক্তি যদি প্রতি মাসে ১০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করে তাহলে ২৮ বছর পর ওই ব্যাক্তি কোটি টাকা ফেরত পাবেন।

৪) ঋণ নেওয়ার ক্ষেত্রে সুবিধা:- পিপিএফ অ্যাকাউন্ট থেকে লোন নেওয়ার সুবিধা রয়েছে। কোনো ব্যাক্তি তার মোট জমা টাকার ২৫% লোন নিতে পারেন। বেশি সুদ পেতে আপনাকে জানতে হবে আপনার পিপিএফ অ্যাকাউন্টে সরকার কিভাবে টাকা জমা করে। পিপিএফ অ্যাকাউন্ট বছরে গণনা করা হয় এবং টাকা জমা করা হয় একবারে বছরের শেষে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

×
Close