নিউজরাজ্য

Cha Kaku: নেটিজেনদের দেওয়া নামেই শুরু করলেন নতুন জীবন, ফের ভাইরাল সেই চা-কাকু

মনে পড়ে চা কাকুকে? যার অবিস্মরণীয় উক্তি ‘আমরা কি চা খাব না? খাব না আমরা চা?’। গত বছর জনতা কারফিউ দিন সকলে যখন গৃহ বন্দি সেই সময় চায়ের দোকানে ভিড় জমিয়েছিল কিছু ব্যক্তি, সেই সময় এক সাংবাদিকের ক্যামেরার সামনে পড়েন চা কাকু ওরফে মৃদুল বাবু, তাকে যখন প্রশ্ন করা হয় কেন লকডাউনের মধ্যে সে বাড়ি থেকে বেরিয়েছে, তা শুনে খুব নির্ভেজাল এক প্রশ্ন করে উঠেছিলেন মিদুল বাবু। কিছুটা হতবাক হয়ে সাংবাদিকের কাছে জানতে চেয়েছিলেন, আমরা কি চা খাব না? খাব না আমরা চা?’

ভিডিওটি পোস্ট করার সাথে সাথে তা ঝড়ের গতিতে হয়ে ওঠে ভাইরাল। সেকেন্ডের মধ্যেই ভিডিওটি শেয়ার করতে থাকে লক্ষ লক্ষ মানুষ। উঠতে বসতে সকলের মুখে শোনা যেত চা কাকুর সেই মহান বানী। রাতারাতি ভাইরাল হয়ে উঠেছিল চা কাকু। তার এই উক্তি এতটাই মনে ধরেছে বাঙালির যে তা নিয়ে তৈরি হয়েছে নানান মিম। রাতারাতি সোশ্যাল মিডিয়ার স্টার হয়ে উঠেছিলেন মৃদুল দেব ওরফে চা কাকু।

মৃদুল বাবুকে নিয়ে হাসি-ঠাট্টা মাঝেই জানা যায় তার সংসারে অভাব-অনটন নিত্যদিনের সঙ্গী। মৃদুল বাবুর অভাবের কথা জানতে পেরে তার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় সাংসদ অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী।

আর এবার চা কাকুর ইমেজকে সঙ্গী করে মৃদুলবাবু খুলে ফেললেন নিজের চায়ের দোকান। চায়ের দোকান খুলে মঙ্গলবার দিন ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে সকলকে নিজের দোকানে চা খাওয়ার আমন্ত্রণ জানালেন মৃদুল বাবু। চা কাকু জানান, তাঁর নতুন চায়ের দোকানের উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে। তাই জলদি চলে আসুন! তার সাথে নিজের দোকানের সামনে দাড়িয়ে ছবিও পোস্ট করেছেন তিনি। নতুন চায়ের দোকান খোলা নিয়ে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সংসার চালাতে কিছু তো একটা করতে হবে, তাই চায়ের দোকান খুলে ফেললাম। যদিও ভাইরাল ভিডিও নিয়ে বিশেষ কোনো মাথাব্যথা নেই মৃদুল বাবুর। তিনি বললেন, এই ভিডিওর ব্যাপারটা বুঝি না। সংসারের হাল ফেরাতে পারলেই হলো।

Tags

Related Articles

Close