×

সাবধান, সামান্য এই চারটি ভুলে মুহূর্তেই ফাঁকা হয়ে যেতে পারে আপনার অ্যাকাউন্ট! এখনি সতর্ক হয়ে যান

যত দিন যাচ্ছে ততই ডিজিটাল পেমেন্ট মেথড এর দিকে ঝুঁকছেন সাধারণ ব্যবহারকারীরা। বিশেষত কোভিড পরবর্তী সময় থেকে হার্ড ক্যাশের পরিবর্তে অনলাইন ইউপিআই পেমেন্ট এর দিকেই বেশি ঝুঁকেছেন জনসাধারণ। আর নিত্যদিন খবর আসছে অনলাইন মাধ্যমে পেমেন্ট করতে গিয়ে নানান জালিয়াতির শিকার হওয়ার। সাইবার সিকিউরিটি বিশেষজ্ঞ ও প্রশাসনের তরফ থেকে বারবার সচেতন করা হলেও সাধারণ মানুষেরা বারংবার শিকার হচ্ছেন এই সকল অপরাধীদের। তাই আজ আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি বিশেষ কিছু সতর্কবার্তা, যা না মানলে আপনার একাউন্টটি ফাঁকা হয়ে যেতে পারে মুহূর্তেই। চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এই সকল সতর্কতাগুলি-

1) পিন শেয়ার করবেন না- অনেক UPI ব্যবহারকারীরাই জনৈক ব্যাক্তিদের নিজেদের ইউপিআই পিন শেয়ার করে থাকেন আর এটা হলো একটা মস্ত বড় ভুল। তাই সর্বদা মনে রাখতে হবে আপনার ইউপিআই পিন কেবলমাত্র আপনারই জানা দরকার, আপনি ব্যতীত অন্য কারোর নয়।

2) টাকা গ্রহণের সময় পিন ব্যবহার- ইউপিআই হোক কিংবা অন্য কোন অ্যাপ! টাকা গ্রহণের সময় প্রেরনকারীর কোনরূপ পিন নম্বর জানার প্রয়োজন থাকে না। তাই অনেক সময় প্রতারকেরা টাকা পাঠানোর নাম করে একাউন্ট অধিকারীর কাছ থেকে পিন নম্বর জানতে চান এবং সেই ফাঁদে পা দিলেই টাকা কেটে শূন্য হয়ে যায় আপনার অ্যাকাউন্ট।

3) কোনো random লিংক এ ক্লিক করা- অনেক সময় লক্ষ্য করা যায় ফেসবুক বা এসএমএস এর মাধ্যমে সাইবার হ্যাকাররা নানান লিংক পাঠিয়ে থাকে এবং ঐসব লিংকে ক্লিক করলেই আপনার ফোনে আপনার অজান্তেই বিভিন্ন ম্যালওয়্যার ইনস্টলড হয়ে যায় এবং মুহূর্তেই আপনার ফোনের যাবতীয় ইনফর্মেশন চলে যায় সেই হ্যাকারের কাছে। যার ফলশ্রুতি হিসেবে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খালি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

4) ফোন হারালে ইউপিআই ইনএক্টিভ- অনেক ক্ষেত্রে ইউপিআই ব্যবহারকারীরা ফোন হারিয়ে গেলেও ইউপিআই একাউন্ট ইন-একটিভ করতে ভুলে যান এবং ফলতঃ অনেকেই ফোন হারালে আপনার ইউপিআই একাউন্ট এর অপব্যবহার করতে পারে। তাই ফোন হারিয়ে গেলে মুহূর্ত বিলম্ব না করে আপনার ইউপিআই একাউন্টটিকে ইন্যাক্টিভ করে ফেলুন।