×

বিশ্বসেরা ‘সুন্দরী শিশু’র তকমা পেয়েছে এই ছোট্ট মেয়েটা, যার সৌন্দর্যের সামনে হার মানবে ঐশ্বর্য

নীল চোখ মিষ্টি হাসি দিয়ে সকলের মন জয় করে নিয়েছে সুন্দর এক পরী। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে এই সুন্দর পরীকে আমরা হয়তো সকলেই চিনি। জন্মের পরেই নিজের সৌন্দর্যের জন্য ভাইরাল হয়েছে সে। বিশ্বের সবথেকে সুন্দরতম শিশু হিসাবে আখ্যা পেয়েছে ইরানের (Iran) ইসফাহান শহরের নিবাসী ওই শিশুটি। যার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হওয়ার সাথে সাথেই ঝড়ের গতিতে তা ছড়িয়ে পড়ে। যার ফ্যান ফলোইং গোটা বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে। শিশুটির নাম অনাহিতা হাশেমজাদেহ (Anahita Hashemjadeh)। যে কিনা পেছনে ফেলে দিয়েছে তাবড় তাবড় সুন্দরী নায়িকাদের।

২০১৬ সালের ১০ ই জানুয়ারি ইরানের ইসফাহান শহরে জন্ম হয় অনাহিতার। মাথায় কোকড়ানো চুল নীল চোখ মিষ্টি হাসিতে ভুবন ভুলিয়ে ছিল এই শিশু। তার প্রথম ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা হয় ২০১৮ সালে। আর তারপরেই তার রূপে মুগ্ধ হয়ে যায় গোটা নেট দুনিয়া। ছোট বয়স থেকেই মেয়ের ফ্যান ফলোইং দেখে রীতিমত অবাক তার বাবা-মাও।

অনাহিতার সমস্ত সোশ্যাল সাইট হ্যান্ডেল করে তার মা। মেয়ের গুণমুগ্ধদের দেখে রীতিমতো অনাহিতার মাও তাজ্জব হয়ে যান। দিন প্রতিদিন বেড়েই চলেছে এই ছোট্ট শিশু ফলোয়ার্সের সংখ্যা। রীতিমতন তার সোশ্যাল অ্যাকাউন্টগুলি হ্যান্ডেল করতে হিমশিম খেতে হয় তার মাকে। বর্তমানে অনাহিতা বিশ্বের অন্যতম শিশু মডেল। তার একটি ঝলক দেখার জন্য রীতিমতন হাপিত্যেশ করে বসে থাকেন নেটিজেনরা। এমনকি কিছুদিন আগে হ্যাক হয়ে গিয়েছিল এই ছোট্ট শিশুর একাউন্ট। আর তারপর অনাহিতার মা তার একটি নতুন একাউন্ট খোলে। কিছুদিন আগে গুজব রটেছিল করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এই শিশু। তবে তার মা জানিয়েছিলেন এটি সম্পূর্ণ মিথ্যে।

কন্যা সন্তান যে কারোর কাছে গলগ্রহ না কিংবা বাবা-মায়ের মাথাব্যথার কারণ নয় তা আরো একবার প্রমাণ করে দিয়েছে এই ছোট্ট শিশু। যারা এখনো পর্যন্ত মনে করেন শিশু কন্যা বাবা-মায়ের কাছে বোঝা তাদের কাছে অনাহিতার এই সাফল্য এক বিশাল বড় বার্তা দেয়। বর্তমান যুগ বদলেছে মেয়েকে মানুষ করতে পারলে সেও পুত্রসন্তানের সমপর্যায়ে হয়ে উঠতে পারে আবার কখনো তার থেকেও এগিয়ে যেতে পারে তা বারে বারে প্রমাণ হয়েছে। আর অনাহিতা যেন তারই আরও এক দৃষ্টান্ত।