নিউজবিনোদনরাজ্য

ওহ লাভলি, বং ক্রাশ মদন মিত্রকে নিয়ে তৈরি হচ্ছে জোড়া বায়োপিক!

মদন মিত্রকে নিয়ে তৈরি হতে চলেছে একসাথে জোড়া বায়োপিক! টলি পাড়ায় কান পাতলে তেমনই খবর শোনা যাচ্ছে। আর তৈরি হবে নাই বা কেন! মদন মিত্র মানেই রাজনীতির এক রঙিন চরিত্র। মদন মিত্র মানেই চোখে রং বেরংয়ের রোদ চশমা, কখনো আবার তিনি রাস্তার ওপর দিয়ে ফুল স্পিডে বাইক ছোটান আবার কখনো টলি সুন্দরীদের সাথে দোল খেলেন। মদন মিত্রের ফ্যাশন তার সদাহাস্য মুখ তার গাওয়া গান সবকিছু নিয়েই তিনি হয়ে উঠেছেন বাংলার ক্রাশ।

পরিচালক রাজা চন্দ সিনেমার মাধ্যমে সকলের সামনে তুলে ধরবেন মদন মিত্রের জীবনের সম্পূর্ন অধ্যায়। এর আগে চ্যালেঞ্জ টু, কিডন্যাপ, রংবাজ এর মতো বিভিন্ন সিনেমা পরিচালনা করেছেন রাজা চন্দ্র। এবার কামারহাটি বিধানসভার বিধায়ক মদন মিত্রের বায়োপিক তৈরি করতে চলেছেন তিনি। এই ছবিতে মদন মিত্রের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে অভিনেতা শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়কে। তবে শুধু রাজা চন্দ্র নয় তার পাশাপাশি পরিচালক রাজর্ষি দেও মদন মিত্রের জীবনী নিয়ে ছবি বানাতে চলেছেন।

রাজর্ষি এই ছবির বিষয়ে বলেন, হ্যাঁ মদন মিত্রকে নিয়ে বায়োপিক তৈরি করছি। ইতিমধ্যে মদন দার সাথে কথা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন রাজর্ষি। রাজর্ষির বক্তব্য, এটা তো কোথাও ছাপা নেই যে রাইট নেওয়া নিয়ে সমস্যা হবে। যদিও 2022 এর আগে কোন ভাবেই বায়োপিকের শুটিং শুরু করতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন রাজর্ষি। রাজর্ষির মতে , যে কোন কাজেরই দুই ধরনের ব্যাখ্যা দিতে পারে। এছাড়াও রাজর্ষি বলেন, ‘মদন মিত্র আমার এলাকার বিধায়ক। যার ফলে মদনদাকে অনেক কাছ থেকে দেখেছি। মদন দার ওঠা-পড়া, কামারহাটি থেকে মদন দার দাঁড়ানো, নির্বাচনে জেতা, তাই বায়োপিকটা কিভাবে বানাবো তা অনেকটাই স্পষ্ট আমার কাছে। যদিও বায়োপিক এর চিত্রনাট্য দেখবে অন্য একজন।যিনি খুব জনপ্রিয় একজন ইতিহাসবিদ, প্রাবন্ধিক এবং কবি। যিনি কামারাহাটিতে দীর্ঘদিন থাকছেন’। যদিও সেই লেখকের নাম এখনই প্রকাশ করতে চাননি পরিচালক।

মদন মিত্রের ভূমিকায় রাজা চন্দ্রের মতন রাজর্ষিরও পছন্দ শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়কে। শোনা যাচ্ছে বলিউডের পংকজ ত্রিপাঠীকেও নিজের তালিকায় রাখছেন রাজর্ষি। শাশ্বত-পঙ্কজ দুই অভিনেতাই নাকি মদন মিত্রর বেশ পছন্দের। তাহলে রাজর্ষি কাকে বেছে নেবেন? পরিচালকের কথায়, ”অপুদা (শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়) চিত্রনাট্যর ব্যাপারে দারুণ খুঁতখুঁতে। তাই আগে চিত্রনাট্য, চরিত্রটাকে সুন্দর করে গুছিয়ে লিখতে হবে। শাশ্বত হোক কিংবা পঙ্কজ ত্রিপাঠী হোক তাদের রাজি করানোর জন্য প্রথমেই প্রয়োজন মজবুত চিত্রনাট্য, ভাল সংলাপ, ভাল স্ক্রিনপ্লে। এগুলি ভালো হলেই অভিনেতা কাজটি করার অনুপ্রেরণা পাবেন। যদিও রাজর্ষির প্রথম পছন্দ অপুদা অর্থাৎ শ্বাশত বন্দ্যোপাধ্যায়ই।

Tags

Related Articles

Close