দেশনিউজ

ভারতকে কড়া হুঁশিয়ারি ‘কাবুলের কসাই’ খ্যাত আফগান যুদ্ধপতির

ভারতে তালিবান সরকারবিরোধী আফগানিস্তানের নেতাদের ঠাই দেওয়া নিয়ে ভারত সরকারের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিলেন পাকিস্তানের মদত পুষ্ট হিজেব-ই-ইসলামি গেরিলা গোষ্ঠীর প্রধান গুলবুদ্দিন হেকমতিয়ার। আগেই এই আফগানিস্তানের প্রাক্তন প্রধান মন্ত্রী তথা আফগান যুদ্ধপতি জানিয়ে দিয়েছিলেন তালিবান সরকারের অংশ না হলেও তার সম্পূর্ণ সমর্থন রয়েছে তাদের সাথে। আর এবার হেকমতিয়ার সরাসরি হুশিয়ারি দিয়ে জানিয়ে দিলেন তালিবানি শাসনের বিরুদ্ধে ভারত যদি কোনরকম ষড়যন্ত্রে শামিল হয় তবে তা ভালো হবে না ভারতের জন্য।

আফগানিস্তান দখলের পর তালিবানদের হাত থেকে বাঁচতে বহু আফগান সাংসদ ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন। এই বিষয়টি নিয়ে একটি সংবাদ মাধ্যমিক প্রশ্নের জবাবে গুলবুদ্দিন হেকমতিয়ার জানিয়েছেন, ‘আফগান সরকার বিরোধী নেতাদের ভারত যদি রাজনৈতিক আশ্রয় দেয় এবং ভারতের মাটিতে থেকে যদি সেই সমস্ত নেতারা আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে তবে তালিবানরাও ছেড়ে কথা বলবে না’।

হেকমতিয়ার তালিবানি শাসনে ভারত ও আফগানিস্তানের সম্পর্ক নিয়ে বলেন, আফগানিস্থানে সাবেক সোভিয়েত আর আমেরিকার আগ্রাসনকে প্রথম থেকেই নয়াদিল্লি সমর্থন করে এসেছে। ভারতের এবার উচিত এই কাবুল নীতি পরিবর্তন করা। চার দশকের এই ভুল শুধরে নিয়ে নতুন করে বিবেচনা করা উচিত ভারত’।

গুলবুদ্দিন হিকমতয়ার আফগানিস্তানের রাজনীতিতে কাবুলের কসাই নামে পরিচিত। আফগানিস্তানের রাজনীতির সাথে বিগত চার দশক ধরে যুক্ত রয়েছেন হিকমতয়ার। ঠান্ডা লড়াইয়ের সময় সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরোধী আমেরিকার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মুজাহিদিন বাহিনীর একজন ছিলেন তিনি। আল-কায়েদার সাথে তার অটুট সংযোগ থাকার কারণে ওয়াশিংটন থেকে তাকে আন্তর্জাতিক জঙ্গির তকমা দেওয়া হয়েছিল। 2001 সালে যখন মার্কিন সেনা আফগানিস্থানে ডেরা বসায় সেই সময় পাকিস্তানে রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছিল হেকমতিয়ার। 1992 থেকে 1996 সালের মধ্যে কাবুলের বহু সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছিলেন হেকমতিয়ার।

দীর্ঘদিন পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের সাহায্যে গা ঢাকা দিয়ে ছিলেন হেকমতিয়ার। অবশেষে 2017 সালে আফগানিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট Mohammad Ashraf Ghani Ahmadzai এর সাথে সমঝোতা করে আফগানিস্তানে ফিরে এসেছিলেন হেকমতিয়ার। এরপর আমেরিকার সেনা কাবুলের মাটি ছেড়ে চলে যাওয়ার পর থেকেই কাবুল দখলের জন্য তালিবানদের নানান ভাবে মদত দিয়েছেন এই নেতা।

Tags

Related Articles

Close