লাইফস্টাইল

Health Tips: প্রতিদিন শসা খেলে মুক্তি পাবেন এই ১০টি কঠিন রোগ থেকে! জেনে নিন

ডাক্তারেরা সাধারণত প্রতিদিন ভারী খাবার খাওয়ার পর এক টুকরো শসা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কেননা এই শসার মধ্যে থাকা প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এবং খনিজ লবণ যা আপনার শরীরকে পুষ্টিপ্রদানের পাশাপাশি আপনার শরীরকে বাঁচায় বিভিন্ন রোগের হাত থেকে। এছাড়াও শসার মধ্যে থাকা বিভিন্ন ভেষজ গুণ আপনার ত্বকের জন্য উপকারী হওয়ার কারণে রূপচর্চার ক্ষেত্রেও বিশেষ সহায়ক হিসেবে কাজ করে থাকে। আসুন জেনে নেয়া যাক প্রতিদিন শসা খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুললে আপনার শরীর কি কি রোগের হাত থেকে পরিত্রান পেতে পারে।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে- শসায় উপস্থিত পুষ্টিগুণ শুধুমাত্র উচ্চ রক্তচাপের ক্ষেত্রেই নয় নিম্ন রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে থাকে। শসার মধ্যে থাকা ভিটামিন বি,ম্যাগনেসিয়াম,সিলিকা,পটাশিয়াম ইত্যাদি উপাদানগুলি শরীরে রক্তচাপের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।

কিডনি স্টোন দূরীকরণে- শসার মধ্যে প্রায় 96 শতাংশ জলীয় পদার্থ থাকে। সেই কারণে শসা দেহের বর্জ্য ও দূষিত পদার্থ দূরীকরণের মাধ্যমে কিডনি স্টোন গলিয়ে দিতে সাহায্য করে। এছাড়াও গলব্লাডার,ইউরিনারি,লিভার এবং প্যানক্রিয়াসের সমস্যায় শসার জুড়ি মেলা ভার।

হজমে সহায়তাকারী- প্রতিদিন ভারি মিল খাওয়ার পর যদি কাঁচা শসা চিবিয়ে খাওয়া হয় তবে শসার মধ্যে থাকা ইরেপসিন নামক এক যৌগ তথা এনজাইম দীর্ঘদিনব্যাপী শরীরের মধ্যে থাকা কোষ্ঠকাঠিন্য,হজমের সমস্যাকে দূর করে আপনাকে মুক্তি দেয় আলসার,এসিডিটি গ্যাস্ট্রাইটিস ইত্যাদি থেকে।

চুল,নোখ এবং চোখের যত্নে শসা-নিয়মিত শসা খাওয়া আপনার চোখে ছানি পড়া আটকাতে পারে। এছাড়াও শসার মধ্যে থাকা সিলিকা এবং সালফার চুলের জন্য বিশেষ উপকারী হওয়ার পাশাপাশি শসার মধ্যে থাকা অন্যান্য খনিজ লবণ শরীর ভালো রাখতে সাহায্য করে।

ক্যান্সারের ঝুঁকি কম করতে- শসার মধ্যে রয়েছে এমন কিছু আয়ুর্বেদিক উপাদান যা স্তন, জরায়ু ইত্যাদি বিভিন্ন অঙ্গে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে দেয় অনেকটাই।

মাথা ব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে শসা- আপনার যদি ঘুম থেকে উঠে মাথা ব্যথার সমস্যা থেকে থাকে সেক্ষেত্রে প্রত্যহ রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে আপনার একটু শসা চিবিয়ে খেয়ে ঘুমাতে যাওয়া উচিত।

শারীরিক জল শুন্যতায় শসা- প্রায় 96 শতাংশ জল দিয়ে তৈরি শসা শরীরে কোনো কারণে ডিহাইড্রেশন হলে সেই সময় জলের পরিবর্তে শসা খেলে তা আপনার শরীরকে জলের যোগান দিয়ে থাকে।

শরীরে ভিটামিনের যোগান- শরীরের রোগ প্রতিরোধ করার জন্য যে সকল ভিটামিন এর প্রয়োজন হয় তারা বেশিরভাগই রয়েছে শসায়। শসার মধ্যে ভিটামিন বি,সিকে ছাড়াও আরও বেশ কিছু পরিমাণ পুষ্টি দ্রব্য রয়েছে যার শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।

ডায়াবেটিস এবং কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে শসা- আপনি যদি সুগার বা ডায়াবেটিসের রোগী হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনার প্রত্যেকদিন শসা খাওয়া বিশেষ উপাদেয়। এছাড়াও শসার মধ্যে থাকা পুষ্টিগুণ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

Tags

Related Articles

Close