লাইফস্টাইল

শনির কুদৃষ্টি থেকে পাবেন রক্ষা, প্রতিদিন কাককে এভাবে দিন খাবার খেতে

অনেকেই থাকেন যারা সকালে উঠে কুকুর বেড়াল এদের খেতে দেন অনেকে আবার পায়রার জন‍্য চাল ছড়িয়ে দেন ছাদে। কাককেও অনেকে খেতে দেন। সাধারণত যদিও সেবা করার উদ্দেশ্য থাকে এতে কিন্তু জানেন এর মাধ্যমে নিজেরও উপকার করছেন আপনি! মানুষ যত প্রকার বিপদে পড়ে তা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় শনি মহারাজ ও রাহুর প্রকোপের কারণে। প্রত্যেকদিন কাককে খাওয়ানো মানে শনি ও রাহুর কুদৃষ্টি থেকে নিজেকে রক্ষা করা।

হিন্দু পুরাণে কাককে শনির বাহন বলে মনে করা হয়। আবার কথিত আছে আমাদের পূর্বপুরুষরা কাকের আকারে পৃথিবীতে আসেন এই কারণে কাকদের খাবার দেওয়া মানে পূর্বপুরুষদেরই খাওয়ানো। তাই বাস্তুমতে হোক কি হিন্দু পুরাণ মতেই কি বৈদিক জ্যোতিষ শাস্ত্র, কাককে খাওয়ানো অত‍্যন্ত শুভ হিসেবে ধরা হয়।

তবে শুধু কাককে খাওয়ানো নয়, আপনি যদি চান শনি, রাহু, কেতু এই তিন গ্রহ আপনার ওপর প্রসন্ন থাকুক তবে অবশ্যই প্রতিদিন এই কাজটিও করুন। এর জন্য প্রতিদিন সকালবেলায় উঠে একটি কুকুরকে রুটি খাওয়ান, যদি পারেন ওই রুটির মধ্যে সামান্য সরষের তেল মাখিয়ে খাওয়াতে পারেন। বাস্তুশাস্ত্রর মতো মনে করা হয় এতে শনি দেবতা অত্যন্ত প্রসন্ন হন।

এছাড়াও সম্ভব হলে বাড়িতে কালো রঙের কুকুর পুষতে পারে তাহলেও এই গ্রহগুলি আপনার উপর সুদৃষ্টি দেবেন ফলের আপনার জীবনের সমস্যা অনেকাংশে কমবে। অর্থকষ্ট থেকে অনেকটা সুরাহা পাবেন। এমনকি বাড়ি থেকে নেগেটিভ এনার্জি চিরকালের মত বিদায় নেবে।