বিনোদনভাইরাল ভিডিও

‘আমার মেয়েকে মেরে ফেলেছে!’ প্রকাশ্যে চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ ঐন্দ্রিলা মায়ের

চিকিৎসকের গাফিলতিতেই নাকি অকালে সকলকে ছেড়ে চলে গিয়েছেন টেলিভিশন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। এমনই বিস্ফোরক দাবী করেছেন তার মা শিখা শর্মা। মাত্র ২৪ বছর বয়সেই ইহলোকের সকল বন্ধন ত্যাগ করে পরলোকে গমন করেছেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা। তার এভাবে চলে যাওয়াকে এখনো মেনে নিতে পারছেন না পরিবারের সদস্যেরা।

সকলের মতে যে মেয়ে দু’বার ক্যান্সারকে পরাজিত করে বেঁচে ফিরেছেন, সে কি আর একবার জীবনযুদ্ধে জয়ী হতে পারতেন না? এরই মাঝে তার মা এমন এক মন্তব্য করেছেন যা শোনার পর রীতিমতো চোখ কপালে উঠেছে সকলের। কারণ, তিনি জানিয়েছেন চিকিৎসকের গাফিলতিতেই মৃত্যু হয়েছে তার মেয়ের। এমনকি তিনি সরাসরি এক চিকিৎসকের ইগোকে দায়ী করেছেন মেয়ের মৃত্যুর জন্য।

শিখাদেবী জানিয়েছেন তার মেয়ের যারা চিকিৎসা করেছিলেন তারা প্রত্যেকেই ভালো ছিলেন, শুধু একজন ছাড়া। ঐন্দ্রিলার চিকিৎসার জন্য একটি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছিল। তাদের মধ্যেই নাকি একজনের ইগোর সমস্যা ছিল। আর সেই কারণেই নাকি ঐন্দ্রিলা কোমায় চলে গিয়েছিলেন। ব্রেন স্ট্রোকের পর অপারেশন করানো হয় তার, যা সফলও হয়েছিল।

তার ঠিক দু’দিনের মাথায় জ্ঞান ফিরেছিল ঐন্দ্রিলার। এরপরই তার এমআরআই করানো হয়। এরপর থেকেই নাকি তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। আসলে এমআরআই করাতে অনেকটা সময় লেগেছিল। তাইতো মেয়ের অকালে চলে যাওয়ার জন্য ওই চিকিৎসককেই দোষ দিয়েছেন অভিনেত্রীর মা।