নিউজরাজ্য

চলন্ত বাসে জন্ম নিলো শিশু! নাম হল রানার

টিভির চ্যানেল বা সোশ্যাল মিডিয়া দেখলেই মানুষের মধ্যে হিংসা মারামারি খবর পাওয়া যায়। দেশের কি হাল হচ্ছে এমনটাই মনে হয় কিন্তু তখন কিছু মানুষ প্রমান করে দেয় মানুষের মানবিকতা এখনো বেচে আছে। আজো একজোট হয়ে সাহায্যের জন্য ঝাপিয়ে পড়ে। সম্প্রতি এমনই এক ঘটনা ঘটেছে যেখানে সাধারন মানুষের তৎপরতা পৃথিবীর আলো দেখলো এক নবজাতক।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার। হলদিবাড়ি বেলতলী এলাকার বাসিন্দা রমনাজ প্রামানিক তার স্ত্রীকে নিয়ে জলপাইগুড়ি কদমতলা এলাকা থেকে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার বাসে চেপে হলদিবাড়ি ফিরছিলেন। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী জরিনা বেগমকে আলট্রাসনোগ্রাফি করানোর জন্য এতটা পথ এসেছিলেন।

কিন্তু হঠাৎ ঘটে বিপত্তি, ১৫ কিলোমিটার রাস্তার ঝাকুনিতে আচমকা প্রসব ব্যাথা উঠে। এই মুহূর্তে ওই অন্তসত্ত্বা মহিলার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন যাত্রীরা। বাস চালকও থামিয়ে দেন বাস। যাত্রীদের সহযোগিতায় বাসে ফুটফুটে পুত্র সন্তানের জন্ম হয়।

এখানে শেষ নয় এরপরই বাসচালক সোজা চলে আসেন হলদিবাড়ি হাসপাতালে। খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন মেখলিগঞ্জ এর বিধায়ক তথা উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার ভাইস চেয়ারম্যান অর্ঘ্য রাষ্ট্রপ্রধান। ওই হাসপাতালের বি এম ও এইচ ডাক্তার তাপস কুমার জানিয়েছেন এমন এক প্রসূতি আসছে খবর পাওয়ার পর চিকিৎসক ও নার্সদের টিম তৈরি ছিল। এরপর বাচ্চার অ্যাম্বেলিকাল কর্ড কেটে মা ও শিশুকে আলাদা করে শুরু হয় চিকিৎসা পদ্ধতি বর্তমানে দুজনেই সুস্থ রয়েছেন। শিশুর নাম রাখা হয়েছে রানার।

Tags

Related Articles

Close