আন্তর্জাতিকদেশনিউজ

ভারতের কৃষক আন্দোলনে নাক গলাচ্ছে কানাডা, সুর চড়ালেন প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো

দিল্লির কৃষক আন্দোলন নিয়ে উত্তাল সারা দেশ। কৃষি আইন সংক্রান্ত বিক্ষোভে কৃষক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে সরকারের চলছে একের পর এক বৈঠক। দিল্লির কৃষক আন্দোলনের রেশ এসে পরেছে রাজ্যেও। কৃষক সংগঠনের নেতারা সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে যতক্ষণ কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি মেনে নেওয়া না হচ্ছে, আন্দোলন চলতে থাকবে। এরই মাঝে শুক্রবার জাস্টিন ট্রুডো স্পষ্ট করে দিয়েছেন যে তিনি কৃষক আন্দোলনের পাশেই আছেন।

রাজধানীতে কৃষকদের আন্দোলন জারি রয়েছে। মিলছে না সমাধানের রাস্তা। এ-বিষয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কথা বলার জন্য পঞ্জাব ও রাজস্থানের তরফেও আর্জি জানানো হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে কৃষক আন্দোলন নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তার মন্তব্যের পরই ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক নড়েচড়ে বসে। ভারতে কানাডার হামকমিশনারকে তলব করে মন্ত্রক। তবে, এত কিছুর পরেও নিজের অবস্থানে অনড় রয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী।

এই প্রসঙ্গে জাস্টিন ট্রুডো জানিয়েছেন, ‘কানাডা সারা পৃথিবী জুড়েই সমস্ত শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের পাশে আছে ও থাকবে। আমরা খুশি যে, আলোচনার মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করতে সরকার উদ্যোগ নিচ্ছে’। ট্রুডো আরও বলেছেন যে, ‘কৃষকদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের অধিকার রক্ষার লড়াইয়ে কানাডা সরকার সব সময় তাঁদের পাশে আছে’।

অন্যদিকে বিদেশ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়, ‘এই মন্তব্য ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ। এমন চলতে থাকলে দু’দেশের সম্পর্কে প্রভাব পড়তে বাধ্য’। এ ব্যাপারে অবশ্য কেন্দ্রের পাশে দাঁড়িয়েছে শিবসেনা-ও। তাদের নেত্রী প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী-ও টুইটারে কানাডার প্রধানমন্ত্রীকে একহাত নেন। লেখেন, ‘আপনি বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন, জেনে ভালো লাগল। তবে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় অন্য কোনও দেশের রাজনীতির বস্তু হয়ে দাঁড়াতে পারে না। অন্যান্য দেশকে আমরা সব সময় যে সৌজন্য দেখিয়ে এসেছি, দয়া করে আপনিও সেটিকে সম্মান করুন।’ এর পরে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বার্তা, ‘আপনার কাছে আর্জি, অন্যান্য রাষ্ট্র এ বিষয়ে মতামত দেওয়ার আগে সমস্যাটির সমাধান খুঁজুন।’ একই প্রতিক্রিয়া আপ বিধায়ক ও মুখপাত্র রাঘব চাড্ডার-ও’।

Related Articles

Back to top button