নিউজরাজ্য

করোনাকে জয় করে বাড়ি ফিরেছে মেয়ে, আনন্দে মেয়ের হাত ধরে উদ্দাম নাচ মায়ের, ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিদিন কত কিছুই না ভাইরাল হয়। এবার একটি মা-মেয়ের নাচের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। শুক্রবার সকালে করোনাকে পরাজিত করে বাড়ি ফিরেছে মেয়ে। সেই আনন্দে আত্মহারা হয়ে মেয়ের সাথে তাল মিলিয়ে নাচতে শুরু করে মা। মুহূর্তেই মধ্যেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। মা-মেয়ে পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদার বাসিন্দা।

সদ্য উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করা মৌপিয়া মাহান্তির করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসায় গত ১৯ শে জুলাই তাকে পশ্চিম মেদিনীপুর শহরের আয়ূষ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দীর্ঘ বারো দিন হাসপাতালে থাকার পর গতকাল গতকাল সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে মৌপিয়া। বাড়ির সামনে স্বাস্থ্যদপ্তরের গাড়ি থেকে নামার পর পরিবারের সদস্যরা মৌপিয়াকে চকলেটের মালা পরিয়ে দেন। এরপর তাকে বরণ করা হয় ফুল ছিটিয়ে। মেয়েকে কাছে পেয়েই স্থানীয় বিজেপি নেত্রী মা মঞ্জুদেবী আনন্দে আত্মহারা হয়ে যান এবং মেয়ের হাত ধরে নাচ করতে শুরু করেন। এলাকার মেয়ে করোনা জয় করে বাড়ি ফেরে উৎসবে মাতেন এলাকাবাসীরা। এছাড়া মেয়েকে জড়িয়ে ধরে কাঁদতে দেখা যায় মঞ্জুদেবীকে।

শুধু মৌপিয়া নয় এরা আগে মৌপিয়ার মা অর্থাৎ মঞ্জুদেবীও করোনাতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। ১৫ জুলাই করোনা আক্রান্ত হয়ে শালবনি সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে ভরতি হন মঞ্জুদেবী। তিনি ২৫ জুলাই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। মা ও মেয়ে দুজনই উপসর্গহীন ছিলেন। মঞ্জুদেবী জানান, তাদের এক পরিচিতের প্রথমে করোনা ধরা পড়ে। তারপর তার পরিবারের সকলে করোনা পরীক্ষা করে। তখন তাদের রিপোর্টও পজিটিভ আসে। পরে মৌপিয়ার ধরা পড়ে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার পর মৌপিয়া জানায়, ‘আমি মোটামুটি ভাল আছি। করোনা নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হবেন না। সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ। বিশেষ ধন্যবাদ যারা কঠিন সময়ে আমাকে সাহস জুগিয়েছেন।’

মঞ্জুদেবী জানান, মেয়ের ১৮ বছর পূরণ হয়ে গিয়েছে মেয়ের। একবার বেঙ্গালুরুতে যোগা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সময়টুকু ছাড়া আর বাকি কোনও দিন ও আমাদের ছাড়া বাইরে কোথাও থাকেনি। এমনকী আত্মীয় স্বজনদের বাড়িতে গেলেও আমাদের ছেড়ে বেশিদিন থাকেনি, এক থেকে দুদিনের মধ্যে চলে আসতো। কিন্তু টানা ১২ দিন ও আমাদের ছেড়ে থাকেনি। তাও আবার হাসপাতালে এরকম এরআগে কোনদিন হয়নি । তাই মেয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরার পর আনন্দে আত্মহারা হয়ে খুশিতে নেচে ফেলেছি।’

Tags

Related Articles

Close