খেলা

দেশের প্রতি অগাধ ভালোবাসা, খেলার মাঠ ছেড়ে এবার সেনাবাহিনীতে থাকবেন ধোনি

গত ১৫ ই আগস্ট ভারতের ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসের দিন সবাইকে চমকে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করেন ভারতের সর্বকালের সফলতম অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ধোনি শুধু দেশের ক্রিকেট থেকেই অবসর নিয়েছেন কিন্তু দেশের প্রতি অগাধ ভালোবাসা এখনও আগের মতই রয়েছে। মাঠ ছাড়লেও সেনা বাহিনীর সাথে সময় কাটাবে ধোনি, রবিবার এমনটা বললেন বন্ধু এবং ব্যবসায়িক অংশীদার অরুণ পান্ডে।

তিনি জানিয়েছেন,‘অবসর নেওয়ার পর থেকে এবার মহেন্দ্র সিং ধোনি আঞ্চলিক সেনা বা টেরিটরিয়াল আর্মির সাথে আগের থেকে অনেক বেশি সময় কাটাবেন। পান্ডে মিডিয়াকে জানান,‘আমি সচেতন ছিলাম যে তিনি শিগগিরই এমনটা করবেন কিন্তু সঠিক সময়টি জানতাম না। যাইহোক তার সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত ছিল। তিনি আইপিএলের জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছিলেন তবে তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছিল এবং তারপরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়ে দেওয়া হল, তিনি এখন মানসিকভাবে মুক্ত।’

অরুণ পান্ডে আরও বলেন,‘১৫ই আগস্ট যেহেতু সেনাবাহিনীর জন্য একটি বিশেষ দিন, ধোনি অবশ্যই সেই জন্য এই দিনটিকে ভেবে রেখেছিলেন। একটি বিষয়ে নিশ্চিত, তিনি এবার থেকে সেনাবাহিনীর সাথে আরও বেশি সময় কাটাবেন। তিনি তার বাণিজ্যিক উদ্যোগ এবং অন্যান্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধদেরও সময় দেবেন।’ ২০১৯ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের কাছে হারের পরে ধোনি আর দেশের জার্সি পরেননি। সেই সময় একমাসের বেশি ধোনিকে দেখা গিয়েছিল প্যারাসুট রেজিমেন্টের সাথে প্রশিক্ষণ নিতে। এদিকে টেরিটোরিয়াল আর্মিতে লেফটেন্যান্ট কর্নেলের সম্মানসূচক পদে রয়েছেন ধোনি।

বেশিরভাগ সময় দেখা যায় অ্যাথলিটের ব্র্যান্ড ভ্যালু অবসরের পরে কমতে থাকে, কিন্তু অরুণ পান্ডে নিশ্চিত বন্ধু ধোনির ক্ষেত্রে তা হবেনা। তিনি আরও বলেন,‘ ২০১৯ বিশ্বকাপের পর আমরা দশটি নতুন ব্র্যান্ডের সঙ্গে চুক্তি করেছি এবং এটি একটি দীর্ঘমেয়াদী জিনিস। ধোনি কেবলমাত্র ক্রিকেটের সাথে যুক্ত নন, তিনি যুবসমাজের আইকন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অবসরের প্রভাব পড়ে তবে ধোনির ক্ষেত্রে সেটা হবে না। তার অর্জনগুলি ব্যক্তিগত নয়, তার অর্জন দলের পক্ষে এবং কৌতুকের জন্য।’

Tags

Related Articles

Close