×

সোজা বা গোল না হয়ে জিলিপি কেন প্যাঁচানো হয়? প্রায় ৯৯% মানুষই উত্তর দিতে পারেননি

বর্তমানে অর্থনৈতিক মন্দার বাজারে প্রতিটি মানুষই চায় অবসরকালীন জীবনে অর্থনৈতিক স্বাচ্ছন্দ্য। তাই ভবিষ্যতের কথা ভেবে অনেকেই দিনরাত পরিশ্রম করতে থাকেন। তবে আপনি কি জানেন ভারত সরকারের এমন বেশ কিছু প্রকল্প রয়েছে যার আওতায় আপনারা ঘরে বসেই অবসরকালীন সময়ে মাসিক পেনশন হিসেবে 21 হাজার টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন? হ্যা!অবাক হলেও এটাই সত্যি। আসুন আজকে এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে জেনে নেওয়া যাক ন্যাশনাল পেনশন স্কিম সম্পর্কে।

জাতীয় পেনশন প্রকল্প হল এমনই এক পেনশন স্কিম যার আওতায় ইকুইটি এবং ঋণ উভয় থাকে। এক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকারের থেকে একটি গ্যারান্টি পাওয়া যায়। একজন ব্যক্তি যদি কুড়ি বছর বয়স থেকে এনপিএসের আওতায় প্রতি মাসে এক হাজার টাকা করে জমা দিতে থাকেন তবে সেক্ষেত্রে অবসরকালীন বয়সে তার মোট বিনিয়োগের পরিমাণ হবে 5.4 লাখ টাকা। যাতে বার্ষিক 10% রিটার্নে বিনিয়োগ দাঁড়াবে মোট 1.05 কোটি টাকা।

এইবার আপনি যদি করপাসের 40% বার্ষিকীতে রূপান্তরিত করেন তবে সেইক্ষেত্রে মূল্য দাঁড়াবে 42.28 লাখ টাকায়। সেখান থেকে 10% হারে মাসিক পেনশন পেয়ে যাবেন 21,140 টাকা হিসাবে। এছাড়াও 63.41 লাখ টাকা প্রায় একেবারেই পেয়ে যাবেন। এছাড়াও বার্ষিক সর্বোচ্চ 2 লাখ টাকা আয়কর বাঁচাতে পারেন এই প্রকল্পের আওতায়। এনপিএস এর আওতায় বিনিয়োগে মিলবে 50 হাজার টাকা পর্যন্ত করে ছাড়।

এছাড়াও জানিয়ে রাখা ভালো,এই এনপিএস স্কিমের আওতায় রয়েছে সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা, পাবলিক প্রফিডেন্ট ফান্ড স্কিম প্রমূখ। তাই আর দেরি কিসের? ঘরে বসেই নিজের ভবিষ্যৎকে সুনিশ্চিত করতে আজ থেকেই বিনিয়োগ করতে শুরু করুন কেন্দ্রীয় সরকারের এই ন্যাশনাল পেনশন স্কিমে আর অবসরকালীন সময়কালে নিজেকে আর্থিক স্বাধীনতা প্রদান করুন বর্তমানেই!