অফবিট

কেন কলা বাঁকা হয়? এর পিছনে অদ্ভুত কারন শুনলে চমকে যাবেন

স্বাস্থ্য ভালো রাখতে ফলের জুড়ি মেলা ভার। ডায়েট থেকে শুরু করে শরীরে পুষ্টিগুণ যোগাতে আমরা প্রত্যেকেই খাদ্যের তালিকায় ফল খেয়ে থাকি। তবে কখনো কি ভেবে দেখেছেন বিভিন্ন ফলের আকৃতি বিভিন্ন ধরনের কেন হয়ে থাকে। এর পেছনেও রয়েছে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা আর আজকের প্রতিবেদন তাই নিয়েই। আজ যেই ফলটিকে নিয়ে কথা বলব সেটি আমাদের দৈনন্দিন জীবনে একটি অতি পরিচিত ফল কলা। আজকে জানবো কেন কলার আকৃতি বাঁকা হয়।

কলা আমাদের খাদ্য তালিকায় একটি অতি কমন ফল। কলায় প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। পটাশিয়াম আমাদের দেহের স্ট্রোকের সম্ভাবনা কম করে এবং হৃদরোগের সম্ভাবনাও কমায়। এমনকি কলা আমাদের ওজন নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে, তাই যারা ডায়েটে থাকেন তারা প্রতিদিন কলা খেয়ে থাকেন। তবে এত পুষ্টিগুণসম্পন্ন কলার আকৃতি কেন বাঁকা হয় চলুন তা জেনেনিই।

বৈজ্ঞানিকদের মতে যে কোন ফলের বৃদ্ধি নির্ভর করে বিভিন্ন হরমোনের ওপর। গাছে বা ফলের বৃদ্ধির জন্য দায়ী ফটোট্রপিজম, গ্রাভিটিজিম ও অক্সিন। আর গ্র্যাভিটি’র কারণেই ফল মাটির নিচ দিকে ঝুঁলে থাকে। কিন্তু কলার ক্ষেত্রে সেটি আলাদা। কলা ট্রপিক্যাল রেইনফরেস্ট গাছ হবার কারণে অনেক গাছের মধ্যে এবং নিচে থাকতে হয়। যার কারণে সরাসরি সূর্যালোক পরেনা কলার উপর। আর এই কারণেই কলা আকৃতি বাঁকা হয়ে থাকে।

গাছের ফল ও ফুল বৃদ্ধির জন্য সূর্যালোকের প্রয়োজন হয়। তবে কলাগাছ এই সেই সূর্যালোক না পাওয়ায় কলা গ্র্যাভিটির বিপরীত দিকে বৃদ্ধি পায়। যাকে বলে নেগেটিভ জিও ট্রপিজম। এই বৃদ্ধির সময় কালে গ্রাভিটির টানে মাটির দিকে বাঁকা আকৃতি নেয় কলা। এক কথায় বলতে গেলে, সূর্যের দিকে কলার বৃদ্ধি হওয়ায় বাঁকা আকৃতি হয় কলার।