অফবিট

জামাইয়ের বীর্যে অন্তঃসত্ত্বা ৫০ বছরের শাশুড়ি ‘মা’, আসল ঘটনা জানলে চমকে যাবেন

মানুষের জীবনের সাথে বিজ্ঞান ওতঃপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে। বিজ্ঞান যত উন্নত হচ্ছে মানুষের জীবনযাত্রাও তত উন্নতির দিকে অগ্রসর হচ্ছে। বিজ্ঞানের হাত ধরে অনেক অসাধ্য সাধন সম্ভব হয়েছে। মানুষের ইচ্ছা পূরণের পথে বাধাগুলিকে সহজেই সরিয়ে ফেলতে পারছে বিজ্ঞান। এমনই অনেক মেয়ের মা হবার পথে নানারকমের বাধা আসে। কিন্তু বিজ্ঞানের হাত ধরে এখন মানুষ সেই বাধাগুলোকে অতিক্রম করতে সক্ষম হয়েছে। সকলকে মাতৃত্বের স্বাদ দিতে বিজ্ঞান নানারকম পন্থা অবলম্বন করছে। বিজ্ঞান এতটাই এগিয়ে গেছে যে আজ ‘মা’ হলেন মেয়ের সন্তানের মা।

ঘটনাটি হল আমেরিকার। আমেরিকা নিবাসী চ্যালিস স্মিথ, তার 50 বছর বয়সে এগিয়ে এলেন তার মেয়ের সন্তানের মা হতে। তার মেজ মেয়ে কেইটলিন মুনোজের কিছু শারীরিক সমস্যা ও জটিল রোগ থাকায় কোনদিনই মা হতে পারবেন না এমনটাই জানানো হয় ডাক্তারের পক্ষ থেকে। কিন্তু মেয়ে সন্তানের জন্য কাতর। আর তাই উপায় হয়ে দাঁড়ালেন তার মা চ্যালিস, তিনি এগিয়ে এলেন তার মেয়েকে সন্তানসুখ দিতে।

মেয়ের সন্তানের মা হবার জন্য চ্যালিস ডাক্তারের কাছে গিয়ে সব রকমের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করান। সমস্ত টেস্ট করার পর ডাক্তাররা জানান যে চ্যালিস মা হতে পারবেন। সেটি জানার পরই তিনি সমস্ত সংকোচকে দূরে সরিয়ে দিয়ে মেয়ের সন্তানের “সারোগেট মাদার” হবার সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন। আর তারপরই জামাইয়ের শুক্রাণু নিজের গর্ভে প্রবেশ করান।

এখন চ্যালিস 7 মাসের গর্ভবতী। আর কিছুদিন পরেই তিনি তার মেয়ের সন্তানের জন্ম দেবেন। তবে তিনি নিজেও আট সন্তানের মা। এই ঘটনাটি গোটা সোশাল মিডিয়ায় একটি দৃষ্টান্ত হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা সবসময়ই জানি, সন্তানের জন্য মা কি না করতে পারে, এটি তার এক দৃষ্টান্তমূলক উদাহরণ। সমাজের সব রকম ট্যাবু ভেঙে মেয়েকে সন্তানসুখ দিতে মায়ের এমন পদক্ষেপ সত্যিই প্রশংসনীয়।

Related Articles

Back to top button