×

মেয়েদের বা-দিকে, কিন্তু ছেলেদের শার্টের বোতাম ডান-দিকে থাকে কেন? প্রায় ৯৯% মানুষই উত্তর দিতে হন ব্যর্থ

সাধারণত শার্ট প‍্যান্ট ছেলেদের পোশাক কিন্তু বর্তমান যুগে এটি ইউনিসেক্স ফ‍্যাশন হয়ে উঠেছে। শার্ট থেকে চশমা বা বিভিন্ন জিনিসই এখন ইউনিসেক্স। অর্থাৎ এই ধরনের জিনিস গুলি ছেলে বা মেয়ে উভয়েই পরতে পারেন। কিন্তু জানেন কি এতদিন যে শার্ট পরে আসছেন ছেলে আর মেয়েদের শার্টে একটি সূক্ষ পার্থক্য রয়েছে! দুটো শার্টের মধ‍্যে পার্থক্য কি কখনো কি খেয়াল করেছেন!

আসলে লক্ষ্য করলে দেখবেন পুরুষদের শার্ট এর বোতাম ডান দিকে থাকে যেখানে মহিলাদের শার্টের বোতাম থাকে বামদিকে। এ যে কেবল ফ্যাশনজনিত কারন বা দুটোকে পার্থক্য করার জন্য তা নয় এর পিছনে রয়েছে বিশেষ কারণ।

এ বিশেষ কারণ জানতে চলে যেতে হবে ইতিহাসের পাতায়। ইতিহাস বলছে আগের যুগে পুরুষরা তাদের ডান হাতে তরোয়াল ধরতেন অপরদিকে মহিলারা বাম হাত শিশুদের ধরে রাখতেন।

এমনঅবস্থায় যখন পুরুষদের শার্টের বোতাম খুলতে বা লাগানোর প্রয়োজন হতো তখন তারা বাম হাত ব্যবহার করতেন আর শার্টের ডান দিকে বোতাম থাকলে সুবিধা হতো। একইভাবে মহিলারা তাদের সন্তানকে বাঁদিকে ধরে রাখতেন। বাচ্চাদের স্তন্যপান করানোর জন্য তাদের শার্টের বোতাম খুলতে ডান হাত ব্যবহার করতে হতো সেই হিসেবে বামপাশে বোতাম থাকলে সুবিধা হত। এই সুবিধার কথা মাথায় রেখেই ছেলেদের জামার বোতাম ডানদিকে ও মেয়েদের বোতাম বামদিকে তৈরী করা হতো।

তবে এটাই একমাত্র ধারণা নয় এই যুক্তির বাইরেও আরো একটি ইতিহাস সংযুক্ত রয়েছে যা নেপোলিওনের সঙ্গে সম্পর্কিত। বলা হয়ে থাকে যে নেপোলিয়ন বোনাপার্ট আদেশ দিয়েছিলেন মহিলাদের শার্টের বোতাম বাম দিকে থাকা উচিত। প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী নেপোলিয়ন তার জামায় একটি হাত রাখতেন। অনেক মহিলা তাকে অনুসরণ করতে শুরু করেন এমন ঘটনা যাতে না ঘটে তার জন্যই এই ঘোষণা করেছিলেন তিনি। যদিও এই গল্পকাহিনী কোন সুনির্দিষ্ট প্রমাণ নেই।