অফবিটরাজ্য

দেখুন ভিডিও- ক্লাসের মাঝে অশ্লীল ভাষায় গান! ভিডিও ভাইরাল হতেই উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া!

সঙ্গীতা বাগ : রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘটা ঘৃণ্য ঘটনা নিয়ে সোচ্চার সকলে। তীব্র সমালোচনার ঝড় সোশ্যাল মিডিয়াতে। এরই মাঝে আবার অভিযোগ উঠলো বারাসাতের এক স্কুলের কয়েকজন ছাত্রের বিরুদ্ধে। ক্লাসের মাঝে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচিত গানের বিকৃত করে সেটিকে অশ্লীল ভাষায় গান গাওয়ার অভিযোগ উঠেছে বারাসাত মহাত্মা গান্ধী মেমোরিয়াল হাই স্কুলের ছাত্রদের বিরুদ্ধে। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতেই এমন কীর্তি সবার সামনে এসেছে। বারাসাতের বিধায়ক তথা প্রখ্যাত অভিনেতা চিরঞ্জিত দুপুরেই রবীন্দ্রভারতীতে ঘটা ঘটনার বিরুদ্ধে সোচ্চার হন।

আর এদিকে ঠিক একই সময়ে বারাসাতে ঘটে গেল একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। সোশ্যাল মিডিয়াতে নিন্দার ঝড় উঠেছে সাথে সাথেই এই অশ্লীল “কোরাস” নিয়ে।
তবে চিরঞ্জিতের দাবি তিনি এই বিষয়ে একেবারেই অবগত নন। বারাসাতে অনুষ্ঠিত হওয়া ‘বাংলার গর্ব মমতা’ এই কর্মসূচির সভায় এসে তিনি তার বক্তব্য পেশ করেছেন। বলেছেন যে রবীন্দ্রভারতীর ঘটনা কতটা ভয়ঙ্করভাবে নিন্দনীয়। তাঁর মতে, বিদেশী সিনেমাতে এমন শব্দের প্রচলন থাকলেও আমাদের বাংলা সংস্কৃতি এই ধরণের নোংরামি কিছুতেই বরদাস্ত করবে না। এটা তো রীতিমতো বাংলা সংস্কৃতির অবমাননা, অবক্ষয়ের নিদর্শন। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে তিনি দোষারোপ করেননি, উপরন্তু তিনি মনে করেছেন যে আয়োজক, পরিচালকবৃন্দের আরো বেশি সচেতন হওয়া উচিত ছিল। বিশেষ করে তৃণমূল পরিচালিত ছাত্র সংসদের সদস্যদের আরো বেশি সচেতনতা অবলম্বন করা উচিত ছিল।
সবকিছুর মূলে যিনি, অর্থাৎ রবি ঠাকুরের গানের বিকৃতি ও সেটিকে যুবসমাজে ছড়িয়ে দেওয়ার মতো ঘৃণ্য কাজ যিনি করেছেন, সেই ব্যক্তিরও নিন্দনীয় সমালোচনা করেন তিনি।

তাঁর মতে, এরকম ভাবে অশ্লীল শব্দ ব্যবহার করে তিনি যে সেলিব্রিটি হতে চাইছেন সেটি অবিলম্বে বন্ধ হওয়া উচিত এবং আইন অনুসারে এর যদি কোনো শাস্তি থাকে সেটিও বরাদ্দ করা উচিত। সবই ঠিক আছে, তবে চিরঞ্জিতের বিধানসভা এলাকাতেই যে সাংস্কৃতিক অবক্ষয়ের চিত্র উঠে এসেছে, সেটি নেতার কানে না পৌঁছালেও স্কুলের শিক্ষকরা সেটিকে অবহেলা করেননি। ওই স্কুলের প্রদান শিক্ষক জানিয়েছেন, “ঘটনাটির কথা তিনি শুনেছেন। বিদ্যালয় খুললেই তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” গত ৪ মার্চ স্কুলে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য একাদশ শ্রেণীর ছাত্রদের রেজিষ্ট্রেশনের প্রসেস সম্পন্ন হচ্ছিল। ফাঁকা ক্লাস । সুযোগ পেয়ে একাদশ শ্রেণীর ছাত্ররা এই গানটি করেছিল যা পরে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। দেখুন সেই ভিডিও-

Related Articles