করোনার সচেতনতায় ছাগলের মুখে মাস্ক! প্রশংসায় মুখর নেটিজেনরা

Advertisement

দেবপ্রিয়া সরকার : বর্তমানে গোটা বিশ্ব করোনা সংক্রমণের ভয়ে জর্জরিত। সারাদেশ জুড়ে ইতিমধ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ লক্ষ ছাড়িয়েছে। ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৭৩৪ জন, যার মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৬৬ জনের। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে সারাদেশ ব্যাপী চলছে লকডাউন। শুধু এদেশেই নয় বাইরের বেশ কিছু দেশ লকডাউনের মধ্যে দিয়ে অতিবাহিত করছে। এই ভাইরাসে আতঙ্কিত হওয়ার মূল কারণ হলো এই ভাইরাসের কোনো সঠিক টিকা এখনও পর্যন্ত আবিষ্কার করতে পারেনি কোন চিকিৎসক বিজ্ঞানী। আপাতত ম্যালেরিয়ার ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন দিয়েই চলছে এই রোগের চিকিৎসা। এই পরিস্থিতিতে তাই সবথেকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও নিত্যদিনের স্বাস্থ্য সচেতনতার উপর। অর্থাৎ মাস্ক পড়ে বা মুখ কাপড় ঢেকে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসক বিজ্ঞানীরা। এতদিন চিকিৎসকরা বলেছিল এই ভাইরাস পশু পাখিদের মধ্যে হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই। কিন্তু সম্প্রতি নিউ ইয়র্কের একটি চিড়িয়াখানা বাঘ ও সিংহের মধ্যে এই ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে।

Advertisements

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই সাধারণ মানুষ যাদের বাড়িতে পোষ্য আছে তাদের বাঁচাতে সেইসব পোষ্যদের মুখও মাস্ক দিয়ে ঢেকে রাখছে। এমনই একটা ঘটনা দেখা গেল তেলেঙ্গানায়। তেলেঙ্গানার কাল্লুর মন্ডলের বাসিন্দা এ ভেঙ্কটেশ্বর রাও তার পোষ্য ২০ টা ছাগলের মুখ মাস্ক দিয়ে ঢেকে দিলেন। এমন একটি কাজের কারণ জানতে চাইলে তিনি জানান, ‘মানুষ ঘরবন্দি জীবন কাটাতে পারে, কিন্তু এই পোষ্যদের ঘাস খাওয়াতে দুবেলা বাইরে নিয়ে যেতে হয়। তাই তাদের যাতে কোনরকম ভাইরাস সংক্রমণ না ঘটে তাই এই ব্যবস্থা নিয়েছে।’

Advertisements

ভেঙ্কটেশ্বর বাবু প্রতিদিন ছাগলগুলোকে বাইরে নিয়ে যাওয়ার আগে মুখে মাস্ক পড়ান এবং বাড়ি ফেরার পর যথারীতি মাস্ক গুলো ধুয়ে রোদে শুকোতে দেন। এই ঘটনার ছবি তুলে একজন সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে। ভেঙ্কটেশ্বর বাবুর এই রূপ সচেতনতা মূলক উদ্যোগ দেখে সবাই তার প্রশংসা করেন।

Related Articles