নিউজরাজনীতিরাজ্য

তীব্র প্রতিক্রিয়া দিলীপের, চক্রান্ত প্রমাণিত হলে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি

আইন আইনের পথে চলবে দোষী প্রমাণিত হলে। কিন্তু আন্দোলনে নামব চক্রান্ত করে ফাঁসানো হলে। শনিবার এমনই প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বিজেপি যুব মোর্চার নেত্রী পামেলা গোস্বামীর গ্রেফতারি প্রসঙ্গে। গতকাল বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় কোকেন বিতর্কে বলেন, ‘তদন্ত না করে কারও উপর দোষ চাপানো ঠিক নয়’।

সংবাদমাধ্যমকে লকেট বললেন, ‘ব্যাপারটা ঠিক জানি না। তবে অতীতে রাজ্য সরকার মিথ্যা মামলা দিয়েছে বিজেপিকে আটকানোর জন্য। তদন্ত হোক, তদন্ত না করে কারও উপর দোষ চাপানো ঠিক নয়’। গতকাল পুলিশ মাদক-সহ গ্রেফতার করে নিউ আলিপুরে দলের যুব মোর্চার নেত্রী পামেলা গোস্বামীকে। তাঁর সঙ্গী এক যুবককেও গ্রেফতার করা হয়। ১০০ গ্রাম কোকেন পাওয়া গিয়েছে তাঁদের কাছ থেকে।

শুক্রবার বিকেলে অভিযুক্ত বিজেপি যুব মোর্চার নেত্রী পামেলা গোস্বামী নিউ আলিপুরের এন আর অ্যাভিনিউ দিয়ে গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছিলেন। প্রবীর কুমার দে নামে আরও এক যুবক তাঁর সঙ্গে গাড়িতে ছিলেন। এ দিন আগেই উপস্থিত হয়েছিল পুলিস গোপন সূত্রে খবর পেয়ে। মাঝরাস্তায় আটকানো হয় গাড়িটিকে।

ওই গাড়ি থেকে ১০০ গ্রাম কোকেন উদ্ধার হয় তল্লাশির সময়ে। এরপরই গ্রেফতার করা হয় পামেলা ও তাঁর সঙ্গী প্রবীর দু’জনকেই। পুলিশ খতিয়ে দেখছে এই চক্রের সঙ্গে আরও কেউ জড়িত কিনা, কোথায় এবং কেন এই কোকেন নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, সবকিছু। তদন্তকারীদের দাবি, কয়েক লক্ষ টাকা বাজারমূল্য উদ্ধার হওয়া মাদকের। যদিও, বিজেপির সঙ্গে ধৃত পামেলা গোস্বামীর যোগাযোগ খুব বেশি দিনের নয়। তবে সম্প্রতি তিনি সক্রিয়ভাবে অংশ নিচ্ছিলেন দলের যুব মোর্চার কর্মসূচিতে।

Tags

Related Articles

Close