নদীয়া সংবাদনিউজরাজ্য

বাড়ির নিকাশির জল রাস্তায়, প্রতিবাদ করাতে নদীয়ার একই পরিবারের তিন জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ

অভিযোগ অনুযায়ী শহিদুল কারিগরের বাড়ির অব্যবহৃত নোংরাজল রাস্তায় পরে।

মলয় দে নদীয়া:- নদীয়া জেলার শান্তিপুর শহরের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের সাত ভাই পাড়ার বাপ্পা কারিগর এবং শহিদুল কারিগর দীর্ঘদিন প্রতিবেশী হিসেবে বাস করে আসছেন। অভিযোগ অনুযায়ী শহিদুল কারিগরের বাড়ির অব্যবহৃত নোংরাজল রাস্তায় পরে। এ নিয়ে আগেও দু-একবার সরব হয়েছেন প্রতিবেশী বাপ্পা কারিগর।

এলাকাবাসীর সালিশি সভায় সামরিক মীমাংসা হলেও গতকাল রাত দশটা নাগাদ বাপ্পা কারিগর, স্ত্রী পারভিনা বিবি, মা রাশিদা বিবি, বাবা হাসমত আলী প্রত্যেককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপ মারে। সারা বাড়িতে রক্তগঙ্গা বয়ে যায়! চেঁচামেচি শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসতেই পালিয়ে যায় অভিযুক্ত শরিফুল কারিগর এবং তার দুই ছেলে শাকিল এবং শামীম।

দুর্ঘটনা ঘটার সাথে সাথে প্রতিবেশীরা শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি পড়ায় আহতদের। মায়ের মাথা ফাটে এবং হাত ভেঙে যায়, বাপ্পা কারিগরের মাথায় এবং হাতে আটটা সেলাই পড়ে, স্ত্রীর মুখে পাঁচটা সেলাই পড়ে, বাবার রক্ত না বেরোলেও গুরুতর আহত লাঠির বাড়িতে। আজ সকাল দশটা নাগাদ শান্তিপুর থানায় শহিদুল কারিগরের চার সদস্যের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে শান্তিপুর থানার পুলিশ।

Tags

Related Articles

Close