নদীয়া সংবাদনিউজরাজ্য

চীনামাঞ্জা ঘুড়ির সুতোয় আটকে গুরুতর আহত কোকিল, প্রাথমিক চিকিৎসার পর বনদপ্তরে সমর্পণ

নদীয়া জেলার ধুবুলিয়ার ধুবলিয়া শ্যামাপ্রসাদ শিক্ষায়তন নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একটি কোকিল পাখিকে উদ্ধার করা হয়।

Advertisement

মলয় দে নদীয়া:- ঘুড়ির সুতোয় আহত পশুপাখির সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে! সদ্য অনুষ্ঠিত বিশ্বকর্মা পুজোয় ঘুড়ি ওড়ানোর প্রবণতা অনেকেরই। প্রশাসনিক বাধা থাকলেও কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে চিনা সুতোর ব্যবহার হয়েছে যথেচ্ছ। গাছে পথপ্রান্তে পড়ে থাকা সুতির সুতো বৃষ্টিতে ভিজে কিছুদিন বাদে নষ্ট হয়ে গেলেও চিনা সুতোর দ্বারা পশু-পাখিক আহত হতে থাকবে বহুদিন।

এরকমই এক মর্মান্তিক ঘটনা ধরা পড়লো আমাদের ক্যামেরায়। নদীয়া জেলার ধুবুলিয়ার ধুবলিয়া শ্যামাপ্রসাদ শিক্ষায়তন নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একটি কোকিল পাখিকে উদ্ধার করা হয়। বিদ্যালয়ে চলছে শ্রেণিকক্ষ রংয়ের কাজ। প্রধান শিক্ষক লক্ষ্য করেন বিদ্যালয়ের নিজস্ব বটগাছের উপরের দিকে পাখিরালয়ে আটকে আছে একটি পাখি।

প্রসঙ্গত আম্ফান ঝড়ের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায়, ওই গাছের কৃত্তিম বাসা বানিয়ে দেওয়া হয়েছিলো বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নূর মহম্মদ খান জানান “আহত ওই পাখিটাকে বটগাছের উপর থেকে প্রাক্তন ছাত্র সফিকুল ইসলামের মাধ্যমে সেটি নামিয়ে সুতো ছাড়ানো হয় ও কিছু শুশ্রূষা করা হয় । শেষে বিদ্যালয়ের জাতীয় সেবা প্রকল্প প্রোগ্রাম অফিসার ও শিক্ষক দীপ কুমার রায়ের মাধ্যমে কৃষ্ণনগরের বনদপ্তরে পাখিটি জমা করা হয় ।”

Tags

Related Articles

Close