নিউজরাজ্য

মেয়ের গায়ের রং কালো হওয়ায় অপরাধ, ৩ মাসের একরত্তিকে নিজের হাতে খুন করলেন ‘মা’

তিনমাসের শিশুকন্যাকে শ্বাসরোধ করে খুন করলেন জন্মদাত্রী ‘মা’,

একজন মা সবসময় তাঁর সন্তানের ভালো চান। কিন্তু সেই মা কিনা খুন করল একরত্তিকে। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। তিনমাসের শিশুকন্যাকে শ্বাসরোধ করে খুন করলেন জন্মদাত্রী ‘মা’, যাঁর নাম পূরবী পাত্র। আর ওই মৃত শিশুকন্যার নাম অমৃতা পাত্র। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার প্রত্যন্ত সুন্দরবনের গোসাবা থানার সাতজেলিয়া গ্রামপঞ্চায়েতের মথুরাখন্ড গ্রামে।

এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার। স্থানীয় পুলিশ সূত্রের খবর অনুযায়ী, ওই মহিলার সাথে ৮ বছর আগে বিয়ে হয় পেশায় মৎস্যজীবী মথুরাখন্ডের জিতেন পাত্রের। তাঁদের বিয়ের ৬ বছর পর কন্যাসন্তান হয় হয়। এরপর বিগত প্রায় তিনমাস আগে তাঁদের দ্বিতীয় কন্যা সন্তান হয়। তবে প্রথম সন্তান ফর্সা হলেও দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের গায়ের রঙ কালো হয়। যা একদম পছন্দ হয়না মায়ের। আর তাই তিনি এতটাই রেগে থাকতেন যে শিশুটির ঠিকমতো পরিচর্যা করতেন না। এমনকি একরত্তি শিশুকে কন্যাকে ব্যাপক মারধোরও করতেন তিনি।

পূরবীর এই কাজ তাঁর শ্বাশুড়ি দেখে ফেলেন। তারপর তিনি পূরবীকে সাবধানও করেন। এরপরেই বুধবার সকালে মা ও ছেলে নদীতে মাছ,কাঁকড়া ধরতে গেলে সুযোগ বুঝে বড়মেয়ে অঙ্কিতার সামনেই তিন মাসের ওই খুদে সন্তানকে বালিশ চাপা দিয়ে খুন করেন মা।

আর এই ঘটনা জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় গোসাবা থানার পুলিস। মৃত ওই শিশুকন্যাকে উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এর পাশাপাশি মাকে আটক করে জিঞ্জাসাবাদ শুরু করেছে পুলিস।

Tags

Related Articles

Close