নিউজরাজ্য

বৌয়ের গায়ের রঙ কালো, শ্বশুরবাড়ি থেকে মেলেনি পন, গৃহবধূকে ভয়ংকর শাস্তি দিল স্বামীর পরিবার

এবার পনের দাবিতে গৃহবধূকে খুন করে পুকুরের মধ্যে লুকিয়ে রাখার অভিযোগ উঠল স্বামী সহ পরিবারের তিন সদস্যের বিরুদ্ধে।

ফের পনের দাবিতে গৃহবধূকে অত্যাচারের অভিযোগ উঠল। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বসিরহাট থানার কোদালিয়া গ্রামে। এবার পনের দাবিতে গৃহবধূকে খুন করে পুকুরের মধ্যে লুকিয়ে রাখার অভিযোগ উঠল স্বামী সহ পরিবারের তিন সদস্যের বিরুদ্ধে। আর এই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, ওই মৃত গৃহবধূর বয়স ২০ বছর, নাম সালমা খাতুন। তার সাথে ৪ বছর আগে কোদালিয়া গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল সৈদের বিয়ে হয়েছিল। বিয়ের পর থেকেই সালমার গায়ের রং কালো হওয়ায় পনের দাবিতে সালমার পরিবারের উপর চাপ দেওয়া হচ্ছিল। ওই গৃহবধূর উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার চালানোর অভিযোগ ওঠে স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে। দীর্ঘদিন ধরেই এই অত্যাচার চলছে। আর শুক্রবার রাতে ঘুমন্ত অবস্থাতে ওই গৃহবধূকে খুন করা হয় বলে অভিযোগ।

শনিবার সকালে মৃত গৃহবধূর পরিবারের লোকেরা ফোন করলে সুইচ অফ আসছিল। এরপর পরিবারের লোকেরা বাড়িতে এসে খোঁজ করেন। কিন্তু বাড়িতে না পেয়ে প্রতিবেশিদিদের জানায়। এরপর গ্রামবাসীরা অনেক খোঁজাখুঁজির পর এলাকারই এক পচা পুকুর থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার করে। আর এরপরে পুলিশকে খবর দেওয়া হলে পুলিশ এসে মৃতার স্বামী, শ্বশুর ও শ্বাশুড়ীকে গ্রেফতার করেছে। মৃত গৃহবধূর ২ বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

Tags

Related Articles

Close