দেশনিউজরাজনীতি

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘ইসলামিক জঙ্গি’ বলে আক্রমণ BJP মন্ত্রীর

এই রাজ্যে ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আর মাত্র কিছু মাস অবশিষ্ট। ফলে স্বভাবতই রাজ্যে রাজনৈতিক দলগুলির গতিবিধি দ্রুত হারে এগোচ্ছে। রাজনৈতিক দলগুলির লক্ষ্য বর্তমানে একটাই – নির্বাচনে জয়লাভ করা। একদিকে তৃণমূল যেমন নিজেদের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে ঝাঁপিয়ে পড়েছে, ঠিক তেমনই বিজেপি প্রথমবার রাজ্যে ক্ষমতায় আসার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনের দিকে গোটা দেশ তাকিয়ে রয়েছে।

তবে শুধু পশ্চিমবঙ্গই নয়, কেন্দ্রের বিজেপি নেতৃত্ব থেকেও পরপর সরাসরি আক্রমণ করা হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সরকারের উপর। এই পরিস্থিতির মাঝখানেই যোগী সরকারের এক মন্ত্রী একটি বিতর্কিত বয়ান দিয়ে রাজনৈতিক উত্তাপ বৃদ্ধি করে ফেলেছেন। উনি এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সরাসরি ‘ইসলামিক জঙ্গি’ আখ্যা দিয়ে মন্তব্য করেছেন।

জানা গিয়েছে, উত্তর প্রদেশে বিজেপির মন্ত্রী আনন্দ স্বরূপ শুক্লা এই রাজ্যের এবং তৃণমূলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘ইসলামিক জঙ্গি’ বলে আক্রমণ করেছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাংলাদেশে গিয়ে আশ্রয় নিতে হবে। উত্তরপ্রদেশের পরিষদীয় দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী আনন্দ স্বরূপ শুক্লা রবিবার বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভারতীয়দের প্রতি কোনও আস্থা নেই। তিনি একজন ইসলামিক জঙ্গি এবং তিনি পশ্চিমবঙ্গে হিন্দু দেব-দেবীদের অপমান করছেন এবং মন্দির ভাঙার কাজ করেছেন। বাংলাদেশের ইশারায় এই সমস্ত কাজ করছেন তিনি।”

স্বরূপ আনন্দ শুক্লা আরও বলেন, “বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস লজ্জাজনক ভাবে হারবে এবং নির্বাচনের পর তিনি বাংলাদেশে পালিয়ে যেতে বাধ্য হবেন।” শুক্লা বলেন, শুধুমাত্র ‘ভারত মাতার জয়’ আর ‘বন্দে মাতরম’ বলা মুসলিমদেরই ভারতে সম্মানের সাথে থাকার অধিকার আছে।

Tags

Related Articles

Close