×

প্রকৃতির সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবে মন, কম খরচে ঘুরে আসুন কলকাতা থেকে মাত্র ৪ ঘণ্টা দূরে এই নতুন সি-বিচে

কম খরচে ঘুরে আসার সেরা ঠিকানা, কলকাতা থেকে মাত্র ৪ ঘণ্টার দূরত্বে রয়েছে অতিসুন্দর এই সি-বিচ

ভ্রমণপিপাসা বাঙালির রক্তে! এক ফাঁক ছুটি পেলেই বাঙালির মন ছুটে যেতে চায় দূরে কোন দিগন্তে। তবে দীঘা-পুরী-দার্জিলিংয়ের বাইরে সাধ্যের মধ্যে সাধপূরণের যে জায়গা রয়েছে তারই হদিস দিতে আজকে আমাদের এই প্রতিবেদন। যেখানে বর্ষাকালে বৃষ্টির আবহাওয়া উপভোগ করতে করতে সমুদ্রতীরের জলরাশির কলকাকলির কলতান শুনতে শুনতে প্রিয় মানুষের হাত ধরে হেটে যেতে পারবেন সৈকত তীরে।

উড়িষ্যার বালাসোরে অবস্থিত এই “বাগদা” সী বিচ পর্যটনের খাতায় নাম লিখিয়েছে সবেমাত্র। এক কথায় বলতে গেলে দীঘা,পুরীর মত অতটা জনবহুল না হলেও এই সীবিচ যে আপনার মনোহরণ করতে সক্ষম একথা বলাই যায়। ভার্জিন এই সিবিচে নেই কোন বিলাসবহুল রিসোর্ট তবে নিজের মতো করে ঝাউ টেন্ট এ একরাত কাটাতে চাইলে এই নতুন অভিজ্ঞতাকে সহজেই আত্মস্থ করতে পারবেন আপনারা।

সৈকতে দাঁড়িয়ে সূর্যাস্ত দেখার পাশাপাশি সমুদ্রের জলে নিজেকে সিক্ত করে সমুদ্র স্নানের মজাও নিতে পারবেন দীঘা পুরীর একঘেয়েমি থেকে বেরিয়ে। নানান সামুদ্রিক প্রাণী যথা লাল কাঁকড়া ইত্যাদির দর্শনও মিলতে পারে এই বিচে। এখানকার মনমুগ্ধকর সমুদ্রতীর আপনার মননকে প্রশান্তি যোগানোর পাশাপাশি সমস্ত গ্লানি দূরীকরণে আপনাকে সাহায্য করবে আবশ্যিকভাবে।

প্রকৃতির সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবে মন, কম খরচে ঘুরে আসুন কলকাতা থেকে মাত্র ৪ ঘণ্টা দূরে এই নতুন সি-বিচে

প্রতিবেদনটি পড়ে নিশ্চয়ই বাগদা বিচে ক্ষণিক সময় কাটানোর উপযোগ জেগেছে আপনার মনে? তাহলে আসুন জেনে নিন কীভাবে যাবেন এই বালেসোরের সীবিচে! বাগদা বিচে যাওয়ার জন্য আপনাকে প্রথমত বালি,হাওড়া কিংবা সাঁতরাগাছি থেকে ট্রেন ধরে পৌঁছাতে হবে বালাসোরে এবং তারপর সেখান থেকে যানবাহন কিংবা অটোতে করে আপনি পৌঁছে যেতে পারেন বাগদা বিচে। তাহলে আর দেরি কিসের? রোজকার ব্যস্ততাময় জীবন থেকে নিজেকে খানিক মুক্তি দিতে আজই প্রিয়জনকে নিয়ে চলে আসুন বাগদা বিচে!