নিউজঅর্থনীতি

প্রতিমাসে নামমাত্র টাকা জমিয়ে কোটিপতি হওয়ার সুযোগ! কাজে লাগান এই ছোট্ট পদ্ধতি

বর্তমান সময়ে সঞ্চয়ের পাশাপাশি বিনিয়োগের দিকটিকেও অনেকটা গুরুত্ব দিয়েছেন সাধারণ মানুষ। কারণ, আর্থিক সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে বিনিয়োগ খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হয়ে উঠেছে। ঠিকঠাকভাবে বিনিয়োগ না করার কারণে পরে আফসোস করতে হয় সকলকে। তবে যদি সঠিকভাবে বিনিয়োগ করা যায় তাহলে খুব কম আয় থেকেও ভালো রকম টাকা সঞ্চয় করে ফেলা সম্ভব।

এক্ষেত্রে প্রধান বিষয় হয়ে দাঁড়ায় বিনিয়োগের সময়সীমা। আজ আমরা সেই সম্পর্কেই আলোচনা করবো এই প্রতিবেদনে। কীভাবে আপনি অনেক কম টাকা বিনিয়োগ করেও ভালোরকম অর্থ সঞ্চয় করতে পারবেন। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, পল্টুর বয়স ২৫ বছর লাল্টুর বয়স ৩০ বছর। দু’জনেই ৬০ বছর বয়সে অবসর নেবে কর্মজীবন থেকে।

পল্টু ১ হাজার টাকা করে রেকারিং করেছিল ৩৫ বছরের জন্য আর লাল্টুও ১ হাজার টাকা দিয়ে ৩০ বছরের জন্য রেকারিং করেছিল। দু’জনেরই সুদের হার ১২ শতাংশ। তবে সময়ের ফারাক ৫ বছরের। শেষে দেখা যাবে পল্টু অবসর নিচ্ছে ৬৫ লক্ষ টাকা নিয়ে আর লাল্টু ৩৫ লক্ষ। চক্রবৃদ্ধি সুদের হারে এমনটাই ফারাক দেখতে পাওয়া যাবে।

অন্যদিকে নিয়মিত সঞ্চয় করার ফলে আরো বেশ কিছু সুবিধা আপনি পাবেন। যেমন- অযথা খরচের প্রবণতাকে কমাবে, জীবনযাত্রার মান উন্নত করবে, গাড়ি বা বাড়ি করার লক্ষ্য পূরণ করা অনেকটাই সহজ হবে। আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো নিশ্চিন্তে অবসর নিতে পারবেন।