আন্তর্জাতিকনিউজ

দুই মহিলার জীবন বাঁচাতে সমুদ্রে ঝাঁপ দিলেন দেশের রাষ্ট্রপতি, প্রশংসায় পঞ্চমুখ গোটা বিশ্ব

বর্তমান যুগে মানুষ শুধু নিজের কথা ছাড়া অন্যের কথা ভাবার সময়টুকু পায়না। তাই অন্যের বিপদ দেখলেও মুখ ফিরিয়ে চলে যায়। কিন্তু এমন কিছু মানুষ এখনও সমাজে রয়েছে যারা নিজেদের জীবন বিপন্ন করে হলেও মানুষের বিপদে পাশে এসে দাঁড়ান। সম্প্রতি এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি মার্সেলো রেবেলো নিজের প্রাণের তোয়াক্কা না করে সমুদ্রে ঝাঁপ দিয়ে ডুবন্ত দুই মহিলাকে উদ্ধার করেছেন।

পর্তুগালের রাষ্ট্রপতির বয়স ৭১ বছর। এই বয়সে দাঁড়িয়ে নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তিনি যা মহৎ কাজ করেছেন তার জন্য গোটা পর্তুগালে তার এখন জয়জয়কার চলছে। যদিও এই কাজে তাকে সাহায্য করেছিল আরেক জন ব্যাক্তি। এই ব্যাক্তিই খুব তাড়াতাড়ি করে জেট জোগাড় করে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছিল।

পর্তুগালের সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে পর্যটন শিল্পের উন্নতির জন্য বিরাট পরিকল্পনা নিয়েছে পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি মার্সেলো রেবেলো। ঐদিন ঘটনাস্থলে তিনি স্বয়ং উপস্থিত ছিলেন। দুই মহিলা সমুদ্রে বোটিং করার জন্য ছোট্ট একটি নৌকা নিয়ে পাড়ি দিয়েছিলেন। কিন্তু সমুদ্রের ঢেউয়ের কারণে তাদের নৌকাটি উল্টে যায়। তারপর ওই দুই মহিলা গভীর জলে পড়ে গিয়ে হাবুডুবু খেতে থাকে।

এই ঘটনা দেখে নিজের জীবনের তোয়াক্কা না করে জলে ঝাঁপ দেন মার্সেলো এবং সাঁতার দিয়েই গভীর সমুদ্রে চলে যান। ওই উপকূলে থাকা আর এক ব্যাক্তি ওই দুই মহিলাকে উদ্ধার করতে সহায়তা করেছিল। সে মুহূর্তের মধ্যে জেট জোগাড় করে পৌঁছে যান ডুবন্ত দুই মহিলার কাছে এবং তাদের তীরবর্তী অঞ্চলে নিয়ে আসে। পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি জানিয়েছে, ওই দুই মহিলার শরীরে প্রচুর পরিমাণে জল ঢুকে গিয়েছিল। কিন্তু এখন তারা অনেকটাই সুস্থ আছে।

Tags

Related Articles

Close