×
Jannah Theme License is not validated, Go to the theme options page to validate the license, You need a single license for each domain name.
Trending

টার্গেট চীন, ভারতের পাশে বিশ্বের ক্ষমতাশালী চার দেশ, প্রবল সংকটে বেজিং

ভারত চিন সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জাওয়ান শহীদ হওয়ার পর থেকেই ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ। চিনের বিরুদ্ধে নিজেকে তৈরি করছে ভারত। ইতিমধ্যেই দেশজুড়ে চিনা দ্রব্য বয়কটের ডাক দিয়েছে ভারত। আর এবার শুধু একা ভারত নয় অস্ট্রেলিয়া, জাপান দক্ষিণ কোরিয়ার, আমেরিকা একত্রিত হয়ে সকলেই ভারতের পাশে থেকে চিনের বিরোধ করবে৷

আমেরিকান ইন্টেলিজেন্সের খবর অনুযায়ী, চিনা সেনাবাহিনী আরও শক্তিশালী করতে চাইছে প্যাংগং এবং তার আশেপাশের অঞ্চলগুলিতে। কিন্তু কম যায়না ভারতও। ভারতের সেনাবাহিনী অত্যন্ত তৎপর৷ ফলে সেই চেষ্টা বারবার ব্যর্থ হচ্ছে। গত ২৯ ও ৩০ অগাস্ট রাতে প্যাংগং লেকের দক্ষিণ দিক চিনা সেনার দখলের উদ্দেশ্য ব্যর্থ করে ভারতীয় সেনাবাহিনী৷

এরই মাঝে মঙ্গলবার এক সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মার্কিন সেক্ট্রেটরি অব স্টেট মাইক পম্পেও বলেন, ‘আমি মনে করি চিনের কমিউনিস্ট পার্টি কখনই তাঁদের সততা, সাম্যতা এবং স্বচ্ছতার পরীক্ষা দিতে প্রস্তুত নয়৷ যে কারণে তাঁদের কর্মকাণ্ডের ওপর বিশ্বাস হারাচ্ছে অন্যান্য দেশ এবং গোটা বিশ্বেই প্রায় একত্রিত হতে শুরু করেছে চিনের বিরুদ্ধে’। অন্যদিকে, দক্ষিণ চিন সাগরে যুদ্ধজাহাজ পাঠানো নিয়ে ভারতের প্রশ্নের জবাবে পম্পেও বলেন, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, আমাদের বন্ধু দেশ৷ তাদের ওপর প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ হামলা চালাচ্ছে চিন। দেশের ওপর বিপদের আশঙ্কা যত, ততই তাঁদের সঙ্গে সহযোগিতা বাড়াবে আমেরিকা’। পম্পেও আশা প্রকাশ করেছেন যে সমস্যা ভারত-চিন সীমান্ত তৈরি হয়েছে তা শান্তিপূর্ণভাবে সমাধান হবে।

পম্পেও আরও জানান, NATO-র মতো একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা হবে যার সদস্য হবে ভারত, জাপান, অস্ট্রেলিয়া, এবং দক্ষিণ কোরিয়া। ইতিমধ্যেই চিনের বিরুদ্ধে গোটা বিশ্ব এক জোট হতে শুরু করেছে। অন্যদিকে ভারত সম্প্রতি নিষিদ্ধ করেছে একগুচ্ছ চিনা অ্যাপস PUBG। এই বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রর প্রতিক্রিয়া অন্য দেশের নিরাপত্তার বিষয়ে চোরাগোপ্তা নজর রাখা তাও অ্যাপের মাধ্যমে, তার বিরোধী আমেরিকা।