কলকাতানিউজবিনোদনরাজ্য
Trending

সুশান্ত মামলা, ‘জাস্টিস ফর রিয়া’র’ ডাকে তোলপাড় কলকাতা

সুশান্ত মৃত্যু কাণ্ডে মাদকচক্রের জড়িত থাকার কারণে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে সুশান্ত বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে। বর্তমানে জেলেই দিন কাটছে অভিনেত্রীর। যদিও বাঙালি অভিনেত্রীর এই দশা মানতে পারছে না অনেকেই। আর এবার রিয়া চক্রবর্তীর ঘটনায় লাগল রাজনীতির রং।

রাজনীতির স্বার্থে ঘা লেগেছে তাই অন্যায়ভাবে ফাঁসানো রিয়া চক্রবর্তীকে। এই অভিযোগ তুলে শনিবার শহরের রাজপথে মিছিল কংগ্রেসের। প্রথম থেকেই সুশান্ত কাণ্ডের মুল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তীর পক্ষে সওয়াল করে আসছিলেন কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী। এবার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি হয়েই সেই বিতর্ককে টেনে আনলেন বাংলার মাটিতে। এদিন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরির নির্দেশেই ধর্মতলায় কংগ্রেসের তরফে প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করা হয়।এদিন কংগ্রেসের এই মিছিল শুরু হয় বিধান ভবন থেকে। মিছিলে যোগ দেয় রাজ্য ও পারিপার্শ্বিক জেলা নেতৃত্ব। এদিন মনোজ চক্রবর্তীর সঙ্গেই বিক্ষোভের নেতৃত্বে ছিলেন অসিত মিত্র, রিজু ঘোষাল, সুমন পাল, মহেশ শর্মা, প্রীতম ঘোষ, প্রদীপ প্রসাদ, সৌরভ প্রসাদ সহ সমস্ত জেলা নেতৃত্ব। মিছিল থেকে অভিযোগ তোলা হয়, ‘বাংলার মেয়ে রিয়া চক্রবর্তীকে অন্যায় ভাবে ফাঁসানো হচ্ছে। এমনকি এই ঘটনায় রিয়াকে রাজনৈতিক শিকারে পরিণত করা হয়েছে’ এমনটাই দাবি তাদের।

উল্লেখ্য,সুশান্ত সিং রাজপুতের তদন্তে নেমে এক মাদক চক্রের গন্ধ পায় ইডি। আর এরপরেই এক হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকেই নিষিদ্ধ মাদক পাচার চক্রের হদিশ পায় ইডি। সেই সমস্ত চ্যাটে মারিজুয়ানা, এমডিএমএ, সিবিডি ওয়ালের মতো বিভিন্ন নিষিদ্ধ মাদকের নাম উল্লেখ ছিল। আর সেই চ্যাট গুলি বিনিময় হয়েছিল রিয়া চক্রবর্তী, সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা, জয়া সাহা, ও গোয়ার হোটেল ব্যবসায়ী গৌরব আচার্যর মধ্যে। সেই অনুযায়ী গত শুক্রবার জিজ্ঞাসাবাদের পর মাদক সেবন ও পাচারের অভিযোগে সৌভিককে গ্রেফতার করে এনসিবি। এরপর সুশান্ত সিং রাজপুতের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাকে আটক করে ইডি। আর মঙ্গলবার গ্রেফতার হয় রিয়া।

গত মঙ্গলবারই এনসিবির জেরার মুখে সব শিকার করে সুশান্ত বান্ধবী রিয়া। ড্রাগ ও নিয়মিত মাদক সেবন করার অপরাধে ওইদিনই গ্রেফতার করা হয় রিয়া চক্রবর্তীকে। NDPS আইনের ৬৭ নম্বর ধারায় রিয়া তাঁর দোষ কবুল করেন। বর্তমানে বাইকুলা জেলেই রাখা হয়েছে অভিনেত্রীকে। শুধু তাই নয় রিয়ার পাশাপাশি গ্রেফতার হয়েছে তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী ও সুশান্তের ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা সহ আরও তিনজনকে। আর এবার সেই রিয়ার প্রতিই অন্যায় হয়েছে বলে গলা ফাটাচ্ছে কংগ্রেস।

Tags

Related Articles

Close