×

‘দিদিকে বলো’তে অভিযোগ জানিয়ে সমস্যা মিটলো প্রতিবন্ধী যুবকের

দেবপ্রিয়া সরকার : দীর্ঘদিন ধরে আধার কার্ডের সমস্যা হতে চলেছে প্রতিবন্ধী যুবকের। তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মসূচি সংগঠন ‘দিদিকে বলো’তে দীর্ঘদিন ধরে তার সমস্যা সংক্রান্ত অভিযোগ করেছিল সেই প্রতিবন্ধী যুবক। প্রতিবন্ধী হওয়ার দরুন বিভিন্ন সরকারি সুযোগ সুবিধা এতে সে যুবক অনেকবার ঘুরেছেন। প্রতিটি ক্ষেত্রে আধার কার্ড না থাকায় তিনি বঞ্চিত হয়েছিলেন। এই সমস্যার সমাধানের জন্য সে ‘দিদিকে বলো’তো অভিযোগ জানায় এবং শেষ পর্যন্ত তার সমস্যার সমাধান ঘটতে চলেছে। যুবক জানিয়েছেন এর আগে আধার কার্ডের সেন্টারে গিয়ে অনেক অফিশিয়াল কাজ করেছেন।

কিন্তু ওই পর্যন্তই শেষ। আধার কার্ড আর পাওয়া হয়নি তার। প্রতিবন্ধী যুবকটি হলো মেদিনীপুরের দাসপুর-২ ব্লকের সাতপোতা গ্রামের বাসিন্দা বিক্রম বেরা। সারা রাজ্য জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মসূচি ‘দিদিকে বলো’ এর নাম্বার ছড়িয়ে রয়েছে। সেই নাম্বার জোগাড় করে বছর ১৯ এর বিক্রম তার সমস্যা সংক্রান্ত অভিযোগ জানায়। দীর্ঘদিন চেষ্টার পর তার সমস্যা মিটতে চলেছে এবং খুব শীঘ্রই সে আধার কার্ড হাতে পাবে জেনে খুবই খুশি বিক্রম। বিক্রম দাসপুরের জ্যোতঘনশ্যাম এলাকার যুবক। সে সেখানকার স্থানীয় একটি স্কুলে পড়াশুনো করে মাধ্যমিক পাশও করেছেন। বিক্রম জানায় মাস দুই আগে ‘দিদিকে বলো’তে ফোন করার পর সিএমও দপ্তর থেকে তার বিষয়টি দেখার জন্য পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা প্রশাসনকে বলা হয়।

এরপর জেলা প্রশাসনের আধিকারিকরা ফোনে ওই যুবকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং জানতে চান তাঁর আধার কার্ড তৈরির সমস্যা। বিক্রম সমস্ত কিছু জানালে তাকে জেলাশাসকের কার্যালয়ে ডেকে ব্যাঙ্কের কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে আধার সেন্টারে পাঠানো হয়। সেখানেই তাঁর আধার কার্ড তৈরির প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। বিক্রম বেরা বলেন, ‘আমার বাঁ হাত ও পা অকেজো, তবু একাধিকবার আধার কার্ডের জন্য ছবি তোলা, আঙ্গুলের ছাপ দেওয়া এসব কাজের জন্য বিভিন্ন জায়গায় গিয়েছি, কিন্তু কোনও বারেই কার্ড আসেনি। দিদিকে বলোতে অভিযোগ জানানোর পরই জেলাশাসকের দপ্তর থেকে আমায় ডেকে আধার কার্ডের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। কাজটি সম্পন্ন হয়েছে তাই আমি ভীষণ খুশি। আশাকরি আধার কার্ডটি হাতে পেলে প্রতিবন্ধীর সরকারি সুযোগগুলি পাওয়া যাবে।’