নিউজ

বাজারে ছেয়ে গিয়েছে প্লাস্টিক ডিম, দেখে নিন কীভাবে চিনবেন আসল নকল ডিমের পার্থক্য?

শীতের মরশুমে ডিমের চাহিদা বেড়ে যায় অনেকটাই। সারা বছর দিমের চাহিদা থাকলেও শীতকালে বহুগুণ বেড়ে যায় ডিম খাওয়ার চাহিদা। বর্তমানে বাজারে নকল ডিম বিক্রির সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই ডিম কেনার আগে অবশ্যই সাধারণ মানুষকে সাবধান হতে হবে। কারণ, এই নকল ডিম খেলে শরীর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে।

ভারতবর্ষ তৃতীয় বৃহত্তম ডিম উৎপাদনকারী দেশ। জানা গিয়েছে, ২০২০-২১ সালে ভারতে মোট ডিম উৎপাদন হয়েছিল ১২২.০৫ বিলিয়ন। ভারতে সবথেকে বেশি ডিম উৎপাদন করা হয় তামিলনাড়ু এবং অন্ধ্রপ্রদেশে। আর খাওয়ার দিক দিয়ে তেলেঙ্গানা রয়েছে সবার আগে। একটি রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে হায়দ্রাবাদেই রোজ ৭৫ লক্ষ ডিম খাওয়া হয়।

আর এই ক্রমাগত ডিমের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে নকল ডিম ব্যবসায়ীরা সুযোগটিকে কাজে লাগাচ্ছে। গত কয়েক বছরে এরকম নানান ঘটনা উঠে এসেছে যেখানে দেখা গিয়েছে নকল ডিম খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অনেকে। আজ আমরা এমন কয়েকটি পদ্ধতি সম্পর্কে জানবো যার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনি চিনে ফেলতে পারবেন কোন ডিমটি আসলে এবং কোনটি নকল।

প্রথমেই দেখতে হবে ডিমের উজ্জ্বলতা। আসল ডিমের থেকে নকল ডিমের উজ্জ্বলতা অনেকটি বেশি। তাই মানুষ উজ্জ্বল ডিম দেখে কিনে নেয়।

নকল ডিম আগুনের সামনে নিয়ে গেলে প্লাস্টিকের মতোন পুড়ে যায় এবং গন্ধ বেরোয়।

আসল ডিম হাতে নাড়ালে কোনোরকম শব্দ হয় না। কিন্তু নকল ডিম হাতে নিয়ে নাড়লে ভিতরে শব্দ পাওয়া যায়।

এছাড়াও কুসুম দেখে আপনি আসল ও নকল ডিমের মধ্যে পার্থক্য করতে পারেন। নকল ডিমের কুসুমে সাদা তরল দেখা যায়।

Related Articles