নিউজ

বাজারে ছেয়ে গিয়েছে প্লাস্টিকের চাল, দেখে নিন কীভাবে চিনবেন আসল নকল চালের পার্থক্য?

আমাদের শরীরে রোগ বাসা বাঁধে মূলত খাবার থেকে। প্রতিনিয়ত চারিদিকে ভেজাল যুক্ত খাবার আমাদের শরীরে বিভিন্ন ধরনের রোগ সৃষ্টি করতে সাহায্য করে। ভেজাল যুক্ত সবজি থেকে শুরু করে ভেজাল এখন চালেও। বাঙালি মানেই ভাত প্রতিদিনের খাদ্য তালিকার প্রধান খাবার। আর তাই এই নকল চালের দৌলতে বিভিন্ন রোগের সম্মুখীন হচ্ছেন বহু মানুষ। কিন্তু কিভাবে চিনবেন এই নকল বা প্লাস্টিকের চাল! আজকের প্রতিবেদনে আপনাদের জানাবো এই প্লাস্টিকের চাল বা নকল চাল চেনার সাতটি উপায়।

আগুন- চাল নকল কিনা পরীক্ষা করতে গেলে প্রথমে চালের দু তিনটি দানা আগুনে ফেলে দিতে হবে। যদি আগুনে পুড়ে ভাত পোড়ার মতো গন্ধ বের হয় তাহলে বুঝতে হবে চালটি আসল। আর যদি প্লাস্টিক পোড়ার মতো গন্ধ বেরোয় তাহলে বুঝতে হবে সেটি প্লাস্টিকের চাল।

চুন জল- কিছুটা জলের মধ্যে গুঁড়ো চুন মিশিয়ে সেই জলে কিছু চালের দানা মিশিয়ে দিন। তারপর ৫ মিনিট পর লক্ষ্য করুন চালের রং বদলেছে কিনা। যদি চালের রং বদলায় তবে সেই চালটি নকল।

চাল সেদ্ধ- চাল সেদ্ধ করবার পর লক্ষ্য করুন হাড়ির ফ্যানের উপর কোনরকম আস্তরণ পড়েছে কিনা। যদি কোনরকম আস্তরণ দেখতে পান, তবে বুঝবেন চালটি নকল।

পান্তা ভাত- ভাত রান্না করার পর দু তিন দিন সেই ভাতকে রেখে দেওয়ার পর যদি দেখেন সেই ভাতে দুর্গন্ধ বেরোচ্ছে, তাহলে বুঝবেন চালটি আসল এবং যদি দুর্গন্ধ না বেরোয় এবং ভাত একই রকম থাকে তাহলে বুঝবেন চালটি নকল।

গরম তেল- গরম তেলের মধ্যে কয়েকটি চালের দানা ফেলে যদি দেখে চালের দানাগুলি কালো হয়ে গেছে, তাহলে বুঝবেন চালটি আসল। কিন্তু যদি চালটি গলে যায় তাহলে বুঝবেন সেটি প্লাস্টিকের চাল।

ঠান্ডা জল- ঠান্ডা জলের মধ্যে কয়েকটি চালের দানা ফেলে যদি দেখেন চাল জলের উপরে ভাসছে, তবে সেটি নকল চাল। আসল চাল হলে জলে ডুবে যাবে।

সুগন্ধি চাল- গোবিন্দভোগ, বাসমতি চাল এগুলি হল সুগন্ধি চাল। এদের গন্ধেই চিনতে পারবেন। তাই এই চাল নকল কিনা খুব সহজেই বোঝা যায়।

Related Articles

Back to top button