নিউজবিনোদন
Trending

অবশেষে মুখ খুলল রিয়া, সামনে আসলো এক VIP ব্যক্তির নাম

যত দিন যাচ্ছে ততই রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু কাণ্ডে। ইতিমধ্যেই সুশান্ত মৃত্যু রহস্যে মাদক চক্রে জড়িত থাকার কারণে গ্রেফতার করা হয়েছে সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে। এরই মাঝে ফের প্রকাশ্যে নয়া তথ্য। সুশান্তের ভালো বন্ধু ‘দিল বেচারা’র পরিচালকও যুক্ত মাদক চক্রে।

গত মঙ্গলবারই এনসিবির জেরার মুখে সব শিকার করে সুশান্ত বান্ধবী রিয়া। ড্রাগ ও নিয়মিত মাদক সেবন করার অপরাধে ওইদিনই গ্রেফতার করা হয় রিয়া চক্রবর্তীকে। NDPS আইনের ৬৭ নম্বর ধারায় রিয়া তাঁর দোষ কবুল করেন। বর্তমানে বাইকুলা জেলেই রাখা হয়েছে অভিনেত্রীকে। শুধু তাই নয় রিয়ার পাশাপাশি গ্রেফতার হয়েছে তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী ও সুশান্তের ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা সহ আরও তিনজনকে। আর এরই মাঝে বারবার রিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদে উঠে এসেছে বেশ কিছু হাই প্রোফাইল বলি তারকার নাম। জেরায় ২৫ জন বলিউডের A-listers নাম জানিয়েছে রিয়া। তাদের মধ্যে সকলেই ড্রাগের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। সূত্রের খবর, মাদক চক্রে যুক্ত থাকার অভিযোগে সারা আলি খান ও অভিনেত্রী রকুল প্রীত সিংয়ের নামও উঠে এসেছে। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হল দিল বেচারা’র পরিচালক মুকেশ ছাবড়া ও সুশান্তের পুরোনো ম্যানেজার ও বন্ধু রোহিনী আইয়ার।

সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে মুকেশ ছাবড়া বন্ধুত্বের কথা কারও অজানা নয়। এমনকি প্রয়াত অভিনেতা সুশান্তের অভিনীত শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’র পরিচালকও মুকেশ ছাবড়া। সেই মুকেশ ছাবড়াও জড়িত মাদকচক্রের সঙ্গে। সূত্রের খবর জেরার মুখে রিয়া স্বীকার করে নিয়মিত ড্রাগ নিতেন মুকেশ ছাবড়া। শুধু তাই না রিয়া নাকি ড্রাগ নিতে চাইত না তাঁকে জোর করে ড্রাগ নিতে বাধ্য করেছিলেন সুশান্ত ও তাঁর বন্ধুরাই। রিয়ার এই কথার সত্যতা কতটা তা তদন্ত করছে তদন্তকারীরা।সূত্রের খবর রিয়া যে ২৫ সেলেবকের কথা জানিয়েছে মাদকচক্রের সঙ্গে যুক্ত তাদের প্রত্যেককেই সমন পাঠাবে এনসিবি করা হবে জেরাও।

উল্লেখ্য, সুশান্ত সিং রাজপুতের তদন্তে নেমে এক মাদক চক্রের গন্ধ পায় ইডি। আর এরপরেই এক হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকেই নিষিদ্ধ মাদক পাচার চক্রের হদিশ পায় ইডি। সেই সমস্ত চ্যাটে মারিজুয়ানা, এমডিএমএ, সিবিডি ওয়ালের মতো বিভিন্ন নিষিদ্ধ মাদকের নাম উল্লেখ ছিল। আর সেই চ্যাট গুলি বিনিময় হয়েছিল রিয়া চক্রবর্তী, সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা, জয়া সাহা, ও গোয়ার হোটেল ব্যবসায়ী গৌরব আচার্যর মধ্যে। সেই অনুযায়ী গত শুক্রবার জিজ্ঞাসাবাদের পর মাদক সেবন ও পাচারের অভিযোগে সৌভিককে গ্রেফতার করে এনসিবি। এরপর সুশান্ত সিং রাজপুতের হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাকে আটক করে ইডি। আর মঙ্গলবার গ্রেফতার হয় রিয়াও।

Related Articles

Back to top button