নিউজরাজ্য

মাত্র ৫ টাকায় দেখতেন রোগী, অকালেই চলে গেলেন গরীবের ভগবান নৈহাটির চিকিৎসক ‘বিধান রায়’

তিনি রোগীর নাড়ি টিপে দেখে বুঝে যেতেন। আর স্বল্প ওষুধ দিয়ে রোগীকে সুস্থ করে তুলতেন।

করোনার কবলে প্রাণ হারালেন আরেক চিকিৎসক। যিনি উত্তর ২৪ পরগনার ‘নৈহাটির বিধান রায়’ নামে পরিচিত ছিলেন। আসল নাম হিরন্ময় ভট্টাচার্য। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর। তিনি ছিলেন গরীবের ভগবান। মাত্র ৫ টাকা ভিজিট নিতেন তিনি। তাঁকে সবাই নৈহাটির ‘বিধান রায়’ বলতেন।

তিনি রোগীর নাড়ি টিপে দেখে বুঝে যেতেন। আর স্বল্প ওষুধ দিয়ে রোগীকে সুস্থ করে তুলতেন। মূলত চেস্ট স্পেশালিস্ট হলেও জেনারেল ফিজিশিয়ান হিসাবে তাঁর চিকিৎসা গরীবের খুব কাজে লাগত। তিনি শিশুদের চিকিৎসার ক্ষেত্রেও খুব ভালো চিকিৎসা করতেন। তিনি নৈহাটির পাশাপাশি গোটা ব্যারাকপুর মহকুমায় পরিচিত ছিলেন। লকডাউনের পর থেকে কোভিডের ভয়ে যখন কোনো চিকিৎসক দেখতে চাননি, তখন তিনি রোগী দেখেছেন। এই অতিমারীর সময় তিনি একজন রোগীকেও ফিরিয়ে দেননি।

শনিবার রাতে তীব্র শ্বাসকষ্ট নিয়ে বেলঘরিয়ার একটি নার্সিংহোমে তাঁকে ভর্তি করা হয়েছিল। তাঁর এর আগে কয়েকদিন ধরে জ্বর ছিল। সোমবার রাত ১০টা ৩০ নাগাদ পর পর দুবার হার্ট অ্যাট্যাক হয়েছিল। যেই ধাক্কা তিনি আর সামলাতে পারেননি। এরপরেই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর মৃত্যুর পর রাজ্যের চিকিৎসক মহলে শোকের ছায়া নেমে আসে।

Tags

Related Articles

Close