দেশনিউজ

এবার থেকে ব্যাংক, রেল ও অন্য সরকারি চাকরির পরীক্ষার ক্ষেত্রে হবে কমন এলিজিবিলিটি টেস্ট

ভিন্ন ভিন্ন পরীক্ষার জন্য ভিন্ন ভিন্ন বোর্ডের এক্সাম দিতে হয়। যেমন রেলে নিয়োগের জন্য RRB, ব্যাংকে নিয়োগের জন্য IBPS এবং সরকারি চাকরির জন্য SSC এর মতো পরীক্ষা দিতে হয়।

চাকরিপ্রার্থীদের ঝামেলা কমাতে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র সরকার। এবার থেকে রেল, ব্যাংক, স্টাফ সিলেকশন কমিশন, আইবিপিএসের মতো পরীক্ষার জন্য আলাদা আলাদা করে পরীক্ষা দিতে হবে না। সমস্ত নন-গেজেটেড পোস্টে নিয়োগের জন্য একটি অভিন্ন এজেন্সি তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে। আর এই এজেন্সির পক্ষ থেকে সমস্ত নন-গেজেটেড পোস্টের চাকরির জন্য একটাই মাত্র পরীক্ষা নেওয়া হবে। আর এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেই ভিন্ন ভিন্ন বিভাগে চাকরির জন্য আবেদন করতে পারবে চাকরিপ্রার্থীরা।

প্রতিবছর ১ লক্ষ ২৫ হাজার সরকারি চাকরির পদের জন্য আবেদন করেন প্রায় ২.৫ কোটি মানুষ। আর তাদের এর জন্য নানা হয়রানি পোয়াতে হয়। ভিন্ন ভিন্ন পরীক্ষার জন্য ভিন্ন ভিন্ন বোর্ডের এক্সাম দিতে হয়। যেমন রেলে নিয়োগের জন্য RRB, ব্যাংকে নিয়োগের জন্য IBPS এবং সরকারি চাকরির জন্য SSC এর মতো পরীক্ষা দিতে হয়। এর জন্য ভিন্ন ভিন্ন ফর্ম ফিলাপ করতে হয়, আলাদা আলাদা প্রস্তুতিও নিতে হয়। অর্থাৎ পরীক্ষা পর্যন্ত একাধিক ঝামেলার সম্মুখীন হবার পাশাপাশি অনেক টাকাও খরচ হয় চাকরিপ্রার্থীদের।

এবার কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি নামে একটি অভিন্ন বোর্ড তৈরি করা হয়েছে। এই এজেন্সির দ্বারা কমন এলিজিবিলিটি টেস্ট নেওয়া হবে অনলাইনের মাধ্যমে। আর এই অনলাইন পরীক্ষায় পাশ করলেই ব্যাঙ্ক, রেল-সহ অন্যান্য সরকারি চাকরির পরীক্ষায় আবেদন করতে পারবে চাকরিপ্রার্থীরা।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং জানান, কমন যে এলিজিবিলিটি টেস্ট নেওয়া হবে এর মেয়াদ থাকবে ৩ বছর। অর্থাৎ এই পরীক্ষায় পাশ করলে চাকরিপ্রার্থীরা ৩ বছর বিভিন্ন পোস্টের চাকরির জন্য আবেদন করতে পারবে। সেক্ষেত্রে তাদের আর পরীক্ষা দেওয়ার প্রয়োজন নেই। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ চলতি বছরের ফেব্রয়ারি মাসে ন্যাশনাল রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি তৈরির কথা ঘোষণা করেছিলেন। আজ বুধবার, বাজেট প্রস্তাবে এই নিয়ে ছাড়পত্র দিয়েছে মন্ত্রিসভা। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, আগামী বছর থেকে এই পদ্ধতিতে পরীক্ষা শুরু হবে।

Tags

Related Articles

Close