দেশনিউজ

অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে আগামীকাল আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করতে পারে মোদী সরকার

অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে না পারলে আগামী দিনে সকলের জন্যই খুব খারাপ দিন আসবে। তাই অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য কেন্দ্র সরকার পরিকাঠামোর ক্ষেত্রে বেশ কিছু ঘোষণা করতে পারে।

করোনা সংক্রমণ রুখতে দেশজুড়ে দীর্ঘদিন ধরে যে লকডাউন চলেছে তার জেরে দেশের অর্থনীতির একপ্রকার কোমর ভেঙে গেছে। অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে না পারলে আগামী দিনে সকলের জন্যই খুব খারাপ দিন আসবে। তাই অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য কেন্দ্র সরকার পরিকাঠামোর ক্ষেত্রে বেশ কিছু ঘোষণা করতে পারে। এরআগেও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বিশেষ ঘোষণা করেছিল মোদী সরকার। এবারেও একটি বড়সড় ঘোষণা হতে পারে কেন্দ্রের তরফে, সূত্র মারফত এমনটাই জানা গিয়েছে।

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, আগামীকাল ১৩ই আগস্ট কেন্দ্র সরকার অর্থনৈতিক বিষয়ে বিশেষ পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করতে পারে। এরআগে গোটা দেশে লকডাউন জারি হবার পর ২ টি আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছিল কেন্দ্রের পক্ষ থেকে। প্রথমবারে প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনায় অর্থ এবং খাদ্যশস্য দেওয়ার ঘোষণা করা হয়েছিল গরীব, প্রবীণ এবং মহিলাদের জন্য। দ্বিতীয়বারে কুড়ি লক্ষ টাকার আত্মনির্ভর প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছিল।

করোনা আবহে দেশীয় শিল্পগুলির বিরাট ক্ষতি হয়েছে। যাতে দেশীয় শিল্পগুলি আন্তর্জাতিক বাজারে নিজেদের জায়গা ধরে রাখতে পারে তার জন্য একগুচ্ছ পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে এবং কর কাঠামোর সংস্কার হতে পারে কেন্দ্রের নতুন ঘোষণায়। অর্থ মন্ত্রকের এক কর্তা জানান, লকডাউনের ফলে দেশীয় শিল্পগুলো মুখ থুবড়ে পড়েছে। তাই শিল্পগুলোকে চাঙ্গা করতে আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্পের আওতায় এই আর্থিক প্যাকেজের কথা ঘোষণা করবে কেন্দ্র।

কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সমীক্ষা করে দেখা হচ্ছে কোন কোন ক্ষেত্রে কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করলে শিল্পগুলিকে পুনরায় দাঁড় করানো যায়। এছাড়া কি পদক্ষেপ নিলে আন্তর্জাতিক শিল্পমহল ভারতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ দেখাবে, কেন্দ্রের তরফে এই বিষয়ে বেশি চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। দেশীয় শিল্পকে ঘুরে দাঁড় করানোর জন্য ইমপোর্ট ডিউটি বাড়ানো হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ সরকারের ধারণা বিদেশি পণ্যের দাম বেশি হলে দেশে উৎপাদিত পণ্যের প্রতি মানুষের ঝোঁক বাড়বে। এবার শুধু দেখার নতুন ঘোষণায় কেন্দ্র সরকার কি পদক্ষেপ নেয়।

Related Articles