দেশনিউজ

বৃষ্টির জলে রানওয়ে থেকে ছিটকে দু’ টুকরো এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান, দেখুন সেই ভিডিও

কেরলের কোঝিকোড়ের কারিপুর বিমান বন্দরে রানওয়েতে পিছলে যায় এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমান। অবতরণের সময় পিছলে পড়ে দুই টুকরো হয়ে যায় বিমানটি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ভয়ঙ্কর বিমান দুর্ঘটনা ঘটে কেরলে। কেরলের কোঝিকোড়ের কারিপুর বিমান বন্দরে রানওয়েতে পিছলে যায় এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমান। অবতরণের সময় পিছলে পড়ে দুই টুকরো হয়ে যায় বিমানটি। ওই বিমানে ১৮৪ জন যাত্রী ছিল বলে জানা গেছে। একজন পাইলট সহ ১৮ জনের মৃত্যু ঘটেছে এবং বহু যাত্রী আহত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিজেপি সাংসদ কে জে অ্যালফোনস। বিমানটিতে ১৭৪ জন যাত্রী, ১০ জন শিশু, দুজন পাইলট এবং ৪ জন কেবিন ক্রু সদস্য সহ মোট ১৯০ জন ছিলেন।

প্রবল বর্ষা চলাকালীন শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টা বেজে ৪০ মিনিট নাগাদ দুর্ঘটনাটি ঘটে। বিমানটি বন্দে ভারত প্রকল্পের অংশ যা করোনাভাইরাস মহামারীর সময়ে বিদেশ থেকে ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনার উদ্দেশে চলাচল করছে। ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইটর‍্যাডার ২৪ অনুসারে জানা গেছে, বিমানটি বিমানবন্দরে বেশ কয়েকবার চক্কর কেটেছিল এবং অবতরণের জন্য দু’বার চেষ্টাও করেছিল। কিন্তু সফল হয়নি। মূলত প্রবল বৃষ্টির জন্যই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রাথমিক অনুমান। তবে বিমানটিতে আগুন লাগেনি। সূত্রের খবর, IX 1344 বিমানের বেশ কিছু যাত্রী আহত হয়েছেন এবং তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে, ১৫ জনের অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক।

দুর্ঘটনার পরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ টুইট করেছেন, “কেরলের কোঝিকোড়ে এয়ার ইন্ডিয়ার এক্সপ্রেস বিমানের মর্মান্তিক দুর্ঘটনা সম্পর্কে জানতে পেরে দুঃখিত। এনডিআরএফকে দ্রুত জায়গায় পৌঁছতে এবং উদ্ধারকাজে সহায়তা করার নির্দেশ দিয়েছি।”
আর কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন টুইট করে জানান, “কোড়িকোড়ের করিপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান দুর্ঘটনার জন্য পুলিশ ও দমকল বিভাগকে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েচে। উদ্ধারকার্য ও চিকিৎসা সহায়তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে”।