অফবিটআন্তর্জাতিকনিউজ

খোঁজ মিলল ৬ কোটি বছরের পুরনো রহস্যময় প্রাণীর, চাঞ্চল্য বিজ্ঞান মহলে

রঙ পাল্টানো যার স্বভাব সে কি এবার জায়গা বদলে ফেললো!! বলা হচ্ছে গিরগিটি কথা সম্প্রতি দৈত্যাকার সামুদ্রিক গিরিগিটির খোজ মিলল। পৃথিবী এক রহস্যগাথা। আর সবচেয়ে বেশী রহস্যে আবৃত সমুদ্রের তলদেশ। সমুদ্র বিজ্ঞানীরা বলছেন সমুদ্রের গভীরে এতো বিস্ময় রয়েছে যা আমাদের কল্পনার বাইরে।

সেরকমই কানাডার একদল গবেষকের উদ্যোগে সম্প্রতি মরক্কো থেকে খোঁজ মিলেছে মসাসরের এক প্রজাতির যার বাস সমুদ্রের কাছাকাছি। শুনলে অবাক হবেন যে এই প্রজাতি প্রায় ৬ কোটি বছর আগের। এই প্রাণীর সাথে কুমিরের অনেকটা সাদৃশ্য রয়েছে। প্রানীবিজ্ঞানীদের মতে এই প্রজাতির বিজ্ঞানসম্মত নাম গ্যাভিয়ালিমিমাস আলমাঘ্রিবেনসিস। আলবার্টা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক কেটি স্ট্রং এবং তার সহকারী এই প্রজাতির খোঁজ পান।

১৮০৮ খ্রিস্টাব্দে জর্জ কভিয়ার এই প্রজাতি যখন প্রথম খুঁজে পান তখন এই মসাসরকে দৈত্যাকার সামুদ্রিক গিরগিটি তকমা দিয়েছিলেন। সব বৈশিষ্ট্য দিক থেকে বিচার করলে মসাসর এক সামুদ্রিক প্রানী। এর দৈর্ঘ্য প্রায় 55 ফুট লম্বা। এর বিশেষ বৈশিষ্ট্য যে এর সামুদ্রিক প্রাণী হলেও বাতাসে শ্বাস প্রশ্বাস নেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে।

গবেষক স্ট্রং তার গবেষণায় পর্যবেক্ষণ করে দেখেছেন যে এই প্রাণীর কুমিরের মতোন মুখের সামনে লম্বা ছুচলো নাক থাকে যা পরিবেশের সাথে খাপ খাওয়াতে সাহায্য করে। সিস্টেমিক প্যালিয়োনটোলজি জার্নালে তার এই গবেষনা প্রকাশিতও হয়। একের পর এক যেখানে পপ্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার খবর মেলে সেখানে এমন কোটি বছরের পুরোনো প্রজাতির সন্ধান স্বস্তি এনে দেয়।

Tags

Related Articles

Close