আন্তর্জাতিকনিউজ

লাফালাফি শেষ! আবারও চীনের সাথে বাণিজ্যচুক্তি কার্যকর করতে রাজি মার্কিন প্রেসিডেন্ট

বেজিং দাবি করেছে যে, বাণিজ্য চুক্তির প্রথম পর্যায় বাস্তবায়িত করা নিয়ে দুই দেশের মধ্যে কথা হয়েছে। এই চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়িত করতে আগ্রহী দু’দেশেই।

বিশ্বে করোনা ভাইরাসের এই সংক্রমণের জন্য প্রথম থেকেই চীনকে দায়ী করেছে আমেরিকা। এর পাশাপাশি চীনের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেবার ও হুমকি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এছাড়া ভারতের সাথে লাদাখ সীমান্ত নিয়ে চীনের সংঘর্ষের সময় ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছিল আমেরিকা। চীনের তীব্র নিন্দা ও করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে এখন সেসব বদলে গেছে। এখন দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য চুক্তি বাস্তবায়িত করার জন্য ফোনে আলাপ-আলোচনা হয়েছে। আর এই খবর সামনে আসতেই আমেরিকার চীনের বিরুদ্ধে এতদিনের সেই আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

বেজিং দাবি করেছে যে, বাণিজ্য চুক্তির প্রথম পর্যায় বাস্তবায়িত করা নিয়ে দুই দেশের মধ্যে কথা হয়েছে। এই চুক্তি দ্রুত বাস্তবায়িত করতে আগ্রহী দু’দেশেই। সোমবার দু দেশের প্রতিনিধির মধ্যে আলোচনা হয়। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, চীনের প্রতিনিধি লিউ হে-র সঙ্গে আমেরিকার বাণিজ্য প্রতিনিধি রবার্ট লিথিজার ও ট্রেজারি সেক্রেটারি স্টিভেন মুচিনের ফোনে কথা হয়।

দুই দেশই দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য এগিয়ে নিয়ে যেতে সম্মতি প্রদান করেছে। আগামী বছর জানুয়ারিতে স্বাক্ষরিত বাণিজ্যচুক্তির প্রথম পর্যায় কার্যকর করতে উপযুক্ত পরিবেশ তৈরিতে সহমত হয়েছে । আর সেই অনুযায়ী নানা পদক্ষেপ করতেও চলেছে তারা। জানা গেছে, জানুয়ারি মাসে স্বাক্ষরিত হওয়া এই চুক্তি অনুযায়ী, বেজিং আগামী দুবছরে আমেরিকার থেকে অতিরিক্ত ২০০ মিলিয়ন ডলারের পণ্য কিনবে। তবে এই বিষয়ে হোয়াইট হাউসের তরফে এখনও কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি।

Tags

Related Articles

Close