আন্তর্জাতিকনিউজ

চীনের বড় সাফল্য, রাশিয়ার পর করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কার করল চীন

যদিও রাশিয়ার ভ্যাকসিনের মতো চীনের এই ভ্যাকসিনের বিরুদ্ধেও অভিযোগ রয়েছে৷

রাশিয়ার পর চীন। এবার করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন বার করে ফেলল চীন। যদিও রাশিয়ার ভ্যাকসিনের মতো চীনের এই ভ্যাকসিনের বিরুদ্ধেও অভিযোগ রয়েছে৷ চীন ও তৃতীয় পর্বের ট্রায়ালের ফলাফলের অপেক্ষা না করেই এই ভ্যাকসিনকেও পেটেন্ট দিয়ে দেওয়া হয়েছে। চীনের ভ্যাকসিন প্রস্ততকারক সংস্থা ক্যানসিনো বায়োলজিক্স কর্পোরেশন (CanSino) – করোনা ভ্যাকসিন Ad5-nCOV -র জন্য পেটেন্ট পেয়ে গেছে৷

তবে অবশ্য চীনের সরকারি সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমসের খবর অনুযায়ী, যদি চীনে মারাত্মক সংক্রমণ শুরু হয় তাহলে এই ভ্যাকসিনের বড় পর্যায়ে প্রডাকশন শুরু হবে। এই ভ্যাকসিন নিয়ে অভিযোগ উঠলেও এই ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সুরক্ষা মান ও কার্যকারিতা ২টি-র ওপরই অসম্ভব জোর দেওয়া হয়েছে। এমনকি চীনের সামরিক বাহিনীর জন্য এই ভ্যাকসিন জুন মাসেই মঞ্জুর করে দেওয়া হয়েছিল।

চীনের আরও এক সরকারি সংবাদপত্র পিপলস ডেইলি রবিবার জানিয়েছে যে ন্যাশনাল ইন্টেলেকচ্যুয়াল প্রপার্টি অ্যাডমিনিসট্রেশনের দলিলের ভিত্তিতে বলা যায় গত ১১ অগাস্ট এই ভ্যাকসিন পেটেন্ট পেয়ে গেছিল। আর ঠিক এই দিনেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন নিজেদের স্পুটনিক ভি-ভ্যাকসিন বাজারে আসার সরকারি ঘোষণা করেছিলেন। CanSino ও চিনের অ্যাকাডেমি অফ মিলিটারি মেডিক্যাল সায়েন্সেস -র যৌথ উদ্যোগে এই Ad5-nCOV নামের বেস নিয়ে ভ্যাকসিনটি তৈরি করা হয়েছে। সাধারণ সর্দি-কাশির যে ভাইরাস তাকেই বদল করে নোভেল করোনা ভাইরাসের জেনেটিক মেটেরিয়াল জুড়ে দেওয়া হয়েছে। চীনের পক্ষ থেকে এটাও দাবি করা হয়েছে যে এই পেটেন্ট পেয়ে যাওয়ার জন্য এই ভ্যাকসিনের নকল কেউ করতে পারবে না।

চীনের এই ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থা জানিয়েছে রাশিয়া, ব্রাজিল, চিলি ও সৌদি আরবে তৃতীয় পর্বের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল চলবে৷ সৌদি আরব এই ভ্যাকসিনের জন্য ৫০০০-র বেশি ভলিন্টিয়ার দেবে বলে জানা গেছে।

Tags

Related Articles

Close