আন্তর্জাতিকনিউজ

আইফোনের নেশায় নিজের কিডনি বিক্রি করে মর্মান্তিক পরিণতির শিকার যুবক

নিজেদের স্ট্যাটাস সিম্বল হিসাবেও ব্যবহৃত হয় আইফোন। অনেকে আবার সখেও কেনেন।

বিশ্বের সব বড় বড় সেলিব্রিটিদের কাছেই আইফোন একেবারে মাস্ট। তবে শুধু সেলিব্রিটিরাই নয়, বহু মানুষ আইফোন কিনছেন। আবার সেটা দেখানোর জন্য আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলতেও ভোলেন না। নিজেদের স্ট্যাটাস সিম্বল হিসাবেও ব্যবহৃত হয় আইফোন। অনেকে আবার সখেও কেনেন। তবে সেই প্রথম থেকেই আইফোনের দাম আকাশছোঁয়া। মানুষের ইচ্ছে থাকলেও এত দাম দিয়ে ফোন কেনা সম্ভব হয় না। তবে আজকাল যদিও অনেক রকম ইএমআই অপশন আছে। সেক্ষেত্রে মানুষ সামর্থ্যনুযায়ী কিনতে পারছেন।

তবে আইফোনের প্রসঙ্গ উঠলেই অনেকে আবার বলে যে কিডনি বেঁচে আইফোন কিনতে হবে। এই মজার কথা প্রায়শই শোনা যায়। কিন্তু জানেন কি এই মজার কথাটা আর মজার হিসেবে রইল না। সত্যি সত্যিই কিডনি বেঁচে আইফোন কিনে ফেলল ১৭ বছরের এক কিশোর। নিশ্চয়ই অবাক হচ্ছেন? তবে এটাই সত্যি।

যদিও ঘটনাটি আজকের নয়, আজ থেকে ৯ বছর আগের ঘটনা। তখন ওই যুবকের বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর। ওই যুবকের নাম ওয়াং শাংকুং। চিনের বাসিন্দা। ৯ বছর আগে বাজারে এসেছে iphone4s o ipad 2, এই দুটি কেনার জন্য পাগল হয়ে ওঠে ওই যুবক। কিন্তু এত দামি ফোন কিনে দেবার সাধ্য ছিল না ওই যুবকের পরিবারের।

তখন ওই যুবকের সাথে একটি লোকের সাক্ষাৎ হয়। নিজের কিডনি বেঁচে বেশ কিছু টাকা পায় সে। আর ওই টাকা দিয়ে iphone4s ও ipad 2 কিনে নেয়। পরিবারের লোককেও কিছু জানাইনি ওই যুবক। এরপর এত বছর পর তাঁর হঠাৎ শরীর খারাপ করতে থাকে। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করলে জানা যায়, তার একটি কিডনি নেই। এরপর সমস্ত ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। জানা গিয়েছে যে একটি লোকাল ডাক্তার খানায় তার কিডনি বাদ দেওয়া হয়। এই ঘটনার তদন্তে ইতিমধ্যেই ৯ জন গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই যুবককের এখন রোজ ডায়ালিসিস করাতে হচ্ছে। তাঁর শরীরের অবস্থা সঙ্কটজনক, সে এখন বাঁচার জন্য আপ্রাণ লড়াই চালাচ্ছে।

Tags

Related Articles

Close