নিউজ

বিপদে পৃথিবী, চৌম্বক ক্ষেত্রের ফাটল বেড়ে দু’টুকরো! বড়সড় দুর্যোগের পূর্বাভাস দিলো NASA

যদিও এই স্তরের সমস্যা আজকের নয়। সমস্যা শুরু হয়েছে অনেক বছর আগেই। ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি জানিয়েছে, এই স্তরের ক্ষমতা গত ২০০ বছর ধরে ৯ শতাংশ কমেছে।

নাসার গবেষণায় উঠে এল এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। এবার বিপদের সম্মুখীন পৃথিবীকে ঘিরে থাকা স্তর। এখন সেই ম্যাগনেটিক ফিল্ডে বিশাল জায়গা জুড়ে ফাটল দেখা দিয়েছে। এর ফলে ধীরে ধীরে এই স্তর পাতলা হয়ে পড়ছে এবং ক্ষমতাও কমছে। একে বলা হচ্ছে সাউথ অতলন্তিক অ্যানোমলি বা এসএসএ (South Atlantic Anomaly- SAA)৷ এই জায়গাটির অবস্থান দক্ষিণ আমেরিকা ও দক্ষিণ অতলন্তিক সাগরের ওপর৷ এই স্তর ফাটলের কারণে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তা দুটি ভাগে ভাগ হয়ে যাচ্ছে৷ এরফলে স্তরের জোর কমছে৷

যদিও এই স্তরের সমস্যা আজকের নয়। সমস্যা শুরু হয়েছে অনেক বছর আগেই। ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি জানিয়েছে, এই স্তরের ক্ষমতা গত ২০০ বছর ধরে ৯ শতাংশ কমেছে। তবে সাউথ আটলান্টিক অ্যানোমলি বা এসএসএ-র ক্ষয় হচ্ছে আরও দ্রুত৷ ১৯৭০ থেকে প্রায় ৮ শতাংশ ক্ষয় হয়েছে। এরফলে যে সমস্যার সৃষ্টি হবে তা হল- যখনই কোনও স্যাটেলাইট এই এসএসএ-র কাছ দিয়ে যাবে তখনই সূর্যের থেকে হাই এনার্জির প্রোটনে ধাক্কা খাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এর কারণ- ম্যাগনেটিক ফিল্ডের দুর্বলতা বাড়ছে এবং তা সূর্যের থেকে আসা কোনও কিছু থেকে রক্ষা করতে পারবে না। শুধু এটাই নয়, এরফলে স্যাটালাইট কম্পিউটারেও সমস্যা হবার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। আর অন্যদিকে ধীরে ধীরে এই ফাটলটি যত বড় হবে ততই সূর্যরাশির বিচ্ছুরণ আরও বাড়বে। এরফলে সূর্যের তেজ আরও অনেক বাড়বে। NASA গবেষণায় জানিয়েছে, এখনই এই বড় ফাটলটির জন্য সরাসরি জনজীবনে কোনো প্রভাব পড়বে না,কিন্তু যত দিন যাচ্ছে বিপদের আশঙ্কা ততই বাড়ছে৷

Tags

Related Articles

Close